বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা থেকে আসা র‍্যাব-৩-এর একটি দল ওই অভিযান চালায়। অভিযানকালে ওই দুজনের ঘর থেকে উগ্রবাদী মতাদর্শের বেশ কয়েকটি বই ও মুঠোফোন জব্দ করা হয়েছে। মুঠোফোনে আনসার আল ইসলামের সদস্যদের সঙ্গে মেসেঞ্জারে যোগাযোগের বিভিন্ন তথ্য পেয়েছে র‍্যাব।

র‍্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে ওই দুজন জঙ্গিবাদে জড়ানোর বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তাঁরা বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দুজন ধর্মীয় বক্তার বক্তব্য শুনে আনসার আল ইসলামে যোগদানে অনুপ্রাণিত হন।

আনোয়ারা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. হুমায়ূন কবির বলেন, র‍্যাব-৩–এর ডিএডি ফিরোজ হোসেন বাঁশখালী থানায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলা করেছেন। ওই মামলার আসামি হিসেবে মেরাজুল ও সাহিদকে থানায় হস্তান্তর করেছে র‍্যাব। আজ বুধবার তাঁদের আদালতে হাজির করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন