আহত যুবকের নাম নুরুল হুদা আশরাফি (৩৫)। তিনি জোংড়া ইউনিয়নের মমিনপুর গ্রামের সৈয়দ আলীর ছেলে। বর্তমানে রংপুরের একটি হাসপাতালে গোপনে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

সীমান্তে বাংলাদেশি যুবকের গুলি লাগার বিষয়ে কোনো তথ্য জানে না বিজিবি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জোংড়া ইউনিয়ন পরিষদের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আজিজুল হক বলেন, ‘শুনেছি কোমরের নিচে গুলি লেগে ভুট্টাখেতে পড়ে ছিল। তাঁর সঙ্গীরা তাঁকে পাটগ্রাম হাসপাতালে ও পরে রংপুরে নিয়ে গেছেন। রক্ত দিয়েছেন, এখন একটু সুস্থ আছে।’

তবে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) রংপুর (তিস্তা-২) ৬১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পাটগ্রাম উপজেলার নাজির গুমানি ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার আবদুর রশিদ খান বলেন, গুলি লাগার বিষয়ে কোনো তথ্য তিনি জানেন না। এ বিষয়ে খবর নিয়ে পরে জানাতে পারবেন।

এর আগে ১৭ মার্চ রাতে পাটগ্রামের জগতবেড় ইউনিয়নের ভেরভেরিরহাট সীমান্তের ওপারে বিএসএফের গুলিতে মো. রেজাউল ইসলাম (৪৩) নামের এক বাংলাদেশি যুবক নিহত হন। এ সময় জুম্মান বাবু (২৮) নামের আরেক বাংলাদেশি যুবক আহত হন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন