বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

যশোরের মনিরামপুর উপজেলা পরিষদের বটতলা প্রাঙ্গণে বুধবার তথ্য অধিকার দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন। এ সময় অনুষ্ঠানস্থলের পাশে সাবরেজিস্ট্রি কার্যালয়ের সামনে লেখা ‘আমি ও আমার অফিস দুর্নীতিমুক্ত’ সাইনবোর্ড দেখিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এই লেখা কি মানুষ বিশ্বাস করে? এক সপ্তাহ আগের কথা। আমি নিজে ঘুষের রেট অনুযায়ী টাকা দিয়ে জমি দলিল করিয়েছি। এসব লেখা সাইনবোর্ড দিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে। আমি বলছি, আজ থেকে এই সাইনবোর্ড যেন আর না থাকে। যদি এই সাইনবোর্ড থাকে, তাহলে দুর্নীতি থাকতে পারবে না।’

অনুষ্ঠানস্থলের পাশে সাবরেজিস্ট্রি কার্যালয়ের সামনে লেখা ‘আমি ও আমার অফিস দুর্নীতিমুক্ত’ সাইনবোর্ড দেখিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এই লেখা কি মানুষ বিশ্বাস করে?’

আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস উপলক্ষে মনিরামপুর উপজেলা প্রশাসন ও বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা এমআরডিআইর উদ্যোগে এই জনসচেতনতামূলক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিভিন্ন স্কুলের-কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, সাংবাদিক ও সামাজিক সংগঠনের সদস্যরা অংশ নেন। বাউলগান, সাপখেলা আর আলোচনা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে যশোরে তথ্য অধিকার বিষয়ে মানুষকে সচেতন করা হয়।

‘ময়িরম, নবিসন হেকমত ভাই/ ঠ্যাকা খাউয়া তথ্য জানতে চায়/ তথ্য ছাড়া বাঁচার উপায় নাই...’ দোতারা হাতে মজিদ বাউলের এই গান দিয়ে বেলা ১১টার দিকে জনসচেতনতা সমাবেশ শুরু হয়। এরপর সরোজিৎ মণ্ডল গান, ‘দুর্নীতিও সাপের মতো কাটছে বারেবার/ছোবল থেকে বাঁচার উপায় তথ্য অধিকার...’। এ সময় এই গানের তালে তালে নেচে অসংখ্য জীবন্ত সাপ নিয়ে খেলা দেখান একজন সাপুড়ে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন মনিরামপুর পৌরসভার মেয়র কাজী মাহমুদুল হাসান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ জাকির হাসান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান উত্তম চক্রবর্তী ও জলি আকতার, এমআরডিআইর নির্বাহী পরিচালক হাসিবুর রহমান, যশোর থেকে প্রকাশিত গ্রামের কাগজের সম্পাদক মবিনুল ইসলাম প্রমুখ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন