কুষ্টিয়ার মিরপুর পৌরসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ ১৬ জানুয়ারি। মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তিনজন। এর মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন আরিফুর রহমান। প্রথম আলোর সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে নির্বাচন ও পৌরসভার সমস্যা-সম্ভাবনা নিয়ে কথা বলেছেন তিনি। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন প্রথম আলোর কুষ্টিয়া প্রতিনিধি তৌহিদী হাসান
default-image

পৌরসভার কোনো সমস্যা আপনার চোখে পড়েছে কি না?

আরিফুর রহমান: বর্তমান মেয়রের দুর্নীতি ও অন্যায় কাজ দেখে ভোটাররা ও জনগণ পরিবর্তন চান। এ কারণে আমি ভোটারদের কাছ থেকে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি।

প্রচারণায় কোনো বাধা পেয়েছেন কি?

আরিফুর রহমান: বাধা সব সময় দেওয়া হচ্ছে। আমাকে ও আমার কর্মীদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু আমি ও আমার কর্মীরা পিছপা হচ্ছি না।

প্রতিটি কেন্দ্রে কি এজেন্ট দিতে পারবেন?

আরিফুর রহমান: অবশ্যই দিতে পারব। কিন্তু সংশয় আছে, কয়েক দিন ধরে কর্মীদের চাপ দেওয়া হচ্ছে। ভয় দেখানো হচ্ছে। তারপরও মাঠে থাকব।

আপনি মানুষকে আকৃষ্ট করতে ফেসবুকে আবেগপ্রবণ হয়ে বক্তব্য দেন কেন?

আরিফুর রহমান: এ কথা সত্য নয়। আমার কর্মীদের মারধর করা হয়। আমার পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হয়। এর মধ্যেই আমি আছি। মানুষের পাশে আগেও ছিলাম,এখনো আছি।

নির্বাচনে আপনি একেবারই নতুন। তরুণ ও নতুন হিসেবে কতটা সাড়া পাচ্ছেন?

আরিফুর রহমান: অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আমার কোনো বিকল্প নেই। আমি শতভাগ আশাবাদী, জয়ী হব। নতুন ভোটার যাঁরা হয়েছেন, তাঁরা আমাকে ভোট দেওয়ার জন্য উন্মুখ হয়ে আছেন।

প্রথম আলো: সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

আরিফুর রহমান: প্রথম আলোকেও ধন্যবাদ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন