আমি ভোট পর্যবেক্ষণ করছি: রবার্ট ডিকসন

বিজ্ঞাপন
default-image

বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট ডিকসন বলেছেন, তিনি সিটি ভোট পর্যবেক্ষণ করছেন। নির্বাচন নিয়ে কোনো মন্তব্য করবেন না।

আজ শনিবার রাজধানীর আজিমপুর গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন ব্রিটিশ হাইকমিশনার। পরিদর্শনকালে কেন্দ্রের তিনটি বুথ ঘুরে দেখেন তিনি।

তখন পর্যন্ত ৪ নম্বর বুথে ভোট পড়ে ৪১টি। ওই বুথে মোট ভোটার ৩৬০টি।

ভোটার সংখ্যা কম থাকার বিষয়ে ব্রিটিশ হাইকমিশনার প্রশ্ন করেন প্রিসাইডিং কর্মকর্তাকে। ওই কর্মকর্তা ব্রিটিশ হাইকমিশনারকে বলেন, লাঞ্চের (দুপুর) পর ভোটার সংখ্যা বাড়তে পারে।

default-image

কেন্দ্র থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় হাইকমিশনারের কাছে ভোট নিয়ে মন্তব্য জানতে চান সাংবাদিকেরা। তখন তিনি বলেন, ‘আমি পর্যবেক্ষণ করছি। নির্বাচন নিয়ে কোনো মন্তব্য করব না।’

দুপুর সোয়া দুইটার দিকে রাজধানীর পুরান ঢাকার বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজে পরিদর্শনে আসেন ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট ডিকসন। এ সময় তিনি ভোটকেন্দ্রের কয়েকটি বুথ ঘুরে দেখেন। নারীদের একটি কেন্দ্রে গিয়ে দেখেন, ভোটগ্রহণ বন্ধ আছে। তিনি এরপর ফিরে যান।

হাইকমিশনার রবার্ট ডিকসন কেন্দ্র ঘুরে দেখেন। প্রিসাইডিং অফিসার, পোলিং এজেন্টদের সঙ্গে কথা বলেন। এরপর তিনি দুপুর ২টা ১৯ মিনিটে এই কেন্দ্রের ৩ নম্বর কক্ষে প্রবেশ করেন। হাইকমিশনার দেখেন, কক্ষের পোলিং এজেন্ট, সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার যার যার চেয়ারে বসেই দুপুরের ভাত খাচ্ছেন। ভোটগ্রহণ বন্ধ আছে। এটা দেখে তিনি মুচকি হাসি দিয়ে কেন্দ্র থেকে বেরিয়ে যান।

কক্ষে উপস্থিত ছিলেন সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার মো. আক্তার হোসেন। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা সিটে বসে খাচ্ছিলাম। এ সময় হাইকমিশনার আসেন। তিনি আমাদের কিছু বলেননি।’

এই কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা এজি এম এমদাদুল হক বলেন, ‘এটা খুবই দৃষ্টিকটু একটা ঘটনা। আমি তাদের আগেও বলেছি যে কোনো অবস্থাতেই বুথে ভোট গ্রহণ বন্ধ করা যাবে না। এটা নিয়ম না। তাদের পালা করে দুপুরের ভাত খেতে বলা হয়েছিল। তাঁরা শুনেননি।’ দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত এই কেন্দ্রে প্রায় ৩০ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন