default-image

নাটোরের লালপুরে একই স্থানে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষ সভা আহ্বান করায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন। উপজেলার কদিমচিলান ইউনিয়নের শেখচিলান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, কদিমচিলান ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাজেদুল ইসলাম আজ বেলা ২টায় শেখচিলান প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক কাউন্সিল আহ্বান করেন। সকাল থেকে সেখানে প্যান্ডেল নির্মাণের জন্য মাইক, শামিয়ানা ও চেয়ার জড়ো করা হয়। একই মাঠে বর্তমান কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সেলিম রেজা দলের বিশেষ বর্ধিত সভা আহ্বান করেন। যদিও মাঠে তাঁদের কোনো তৎপরতা ছিল না।

এই পরিস্থিতিতে ইউএনও উম্মুল বানীন বিদ্যালয় মাঠে ১৪৪ ধারা জারি করে সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেন। দুপুরে এ ব্যাপারে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকিং করা হয়। এ বিষয়ে ইউএনও বলেন, উভয় পক্ষ একই মাঠে সম্মেলন করলে শান্তি-শৃঙ্খলা বিনষ্ট হওয়ার আশঙ্কা আছে। তাই সেখানে ১৪৪ ধারা মোতাবেক নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আওয়ামী লীগ নেতা মাজেদুল ইসলাম বলেন, তিনি ইউএনওর কাছে ওই মাঠে কাউন্সিল আয়োজনের অনুমতি নিয়েছেন। প্রস্তুতিও শেষ করেছেন। হঠাৎ সেখানে আওয়ামী লীগের আরেকটি অংশ বর্ধিত সভা আহ্বান করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করছে। তাঁরা বর্তমান কমিটিতে থাকায় নতুন কমিটি গড়তে অনীহা প্রকাশ করছেন। এ জন্য এই ঝামেলা সৃষ্টি হয়েছে। তাঁরা কাউন্সিল না করে নেতৃত্ব টিকিয়ে রাখতে চাচ্ছেন।

বর্ধিত সভার আহ্বায়ক সেলিম রেজা বলেন, কাউন্সিল করার দায়িত্ব ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের। অথচ সংশ্লিষ্টদের না জানিয়ে বহিষ্কৃত এক নেতা সম্মেলন আহ্বান করেছেন। তাঁর সম্মেলন করার এখতিয়ার নেই।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইসাহাক আলী জানান, ‘সম্মেলনের ব্যাপারে আমরা কিছুই জানি না। প্রশাসন যে সিদ্ধান্ত দেবে, আমরা তা মানার চেষ্টা করব। তবে নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার পর যেন কেউ মাঠে সম্মেলন করতে না পারেন, তা নিশ্চিত করতে হবে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন