বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আহত সুমাইয়া হজারপাড় গ্রামের মো. শাহজালালের মেয়ে। তার শরীর ও মাথায় স্প্লিন্টারের আঘাত রয়েছে। অপর শিক্ষার্থী ইসমাইল বিলপুকুরিয়া গ্রামের ফুল মিয়ার ছেলে। তার পেট ও বুক ঝলসে গেছে। দুজনই ঝলম উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষার্থী।

আহত সুমাইয়ার শরীর ও মাথায় স্প্লিন্টারের আঘাত রয়েছে। অপর শিক্ষার্থী ইসমাইলের পেট ও বুক ঝলসে গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার দুপুরে বার্ষিক পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফিরছিল সুমাইয়া ও ইসমাইল। তারা দুপুর ১২টায় ঝলম বাজারে নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী খায়রুল আনাম এয়াকুবের নির্বাচনী ক্যাম্পের সামনে পৌঁছামাত্র একটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটে। এতে ওই দুই শিক্ষার্থী আহত হয়। খবর পেয়ে বরুড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আনিসুল ইসলাম, সহকারী পুলিশ সুপার প্রশান্ত পাল ও বরুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল বাহার মজুমদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

নৌকার প্রার্থী খায়রুল আনাম এয়াকুব বলেন, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর লোকজন এই হামলা করেছেন।

জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (আনারস প্রতীক) ও বর্তমান চেয়ারম্যান মো. নুরুল ইসলাম বলেন, ‘বোমা ও ককটেল বিস্ফোরণ সম্পর্কে আমি কিছুই জানি না।’

বরুড়া থানার ওসি ইকবাল বাহার মজুমদার বলেন, বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন