বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত ৩০ জুলাই কুমিল্লা-৭ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সাংসদ আলী আশরাফ মারা যান। এরপর শূন্য ওই আসনে ২ সেপ্টেম্বর নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করা হয়। আগামী ৭ অক্টোবর সকাল আটটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত ইভিএমে এ আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ৪ সেপ্টেম্বর বিকেলে চান্দিনা উপজেলা আওয়ামী লীগ বর্ধিত সভা করে আলী আশরাফের ছেলে চান্দিনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনতাকিম আশরাফের নাম একক প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়নের জন্য প্রস্তাব করে কেন্দ্রে পাঠায়। গতকাল শনিবার আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের দুবারের সাবেক উপাচার্য বিশিষ্ট নাক, কান ও গলা বিশেষজ্ঞ প্রাণ গোপাল দত্তকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়। এরপর মুনতাকিম আশরাফের অনুসারীরা চুপ হয়ে যান।

দলের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, প্রাণ গোপাল দত্ত সোমবার মনোনয়নপত্র জমাদানের সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনতাকিম আশরাফ ও সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আলমকে উপস্থিত থাকার জন্য ফোন করেছেন।

জানতে চাইলে দলীয় সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আলম বলেন, ‘মনোনয়ন পেয়ে তিনি (প্রাণ গোপাল দত্ত) আমাদের ফোন করেছেন। আমি মনোনয়ন জমাদানের সময় থাকব। ১৫ সেপ্টেম্বর বর্ধিত সভা ডাকা হয়েছে। ওই সভায় বিস্তারিত আলোচনা হবে।’

প্রাণ গোপাল দত্ত বলেন, ‘দলীয় মনোনয়ন দেওয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও দলের কাছে কৃতজ্ঞ। দলের সবাইকে নিয়ে কাজ করব। সবাই দলীয় প্রার্থীর পক্ষে মাঠে নামবেন।’

এ নির্বাচনে ছয়জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী সালেহ সিদ্দিকী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। সোমবার প্রাণ গোপাল দত্ত, জাপার প্রার্থী মো. লুত্ফর রেজা ও ন্যাপের প্রার্থী মনিরুল ইসলামের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার কথা রয়েছে। আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কাসেম ভূঁইয়া ফরম সংগ্রহ করলেও নির্বাচনে অংশ নেবেন না বলে প্রথম আলোকে জানিয়েছেন। আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী হিসেবে ফরম নেওয়া মুনতাকিম আশরাফ নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন না।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন