বিজ্ঞাপন

মামলার এজাহারে বাদী হামিদ অভিযোগ করেন, গতকাল শনিবার দুপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা মিজানুর রহমান ফেসবুক লাইভে ঘোষণা করেন মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ও তাঁর অনুসারীদের যেখানেই পাওয়া যাবে, সেখানেই মারধরসহ প্রতিরোধ করা হবে। এতে বাদীর নেতা আবদুল কাদের মির্জা ও তাঁর অনুসারীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক প্রথম আলোকে বলেন, বাদীর অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরামর্শ করে মামলাটি রেকর্ড করা হয়েছে। তবে এখনো মামলার কোনো আসামিকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি।

মামলার বিষয়ে জানতে চাইলে খিজির হায়াত খান আজ রোববার সন্ধ্যায় মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, ‘পাঁচ মাস ধরে কাদের মির্জা যেসব অপরাধ করে আসছেন, তাঁর বিরুদ্ধে শতাধিক মামলা হওয়ার কথা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে। কিন্তু পুলিশ তাঁর বিরুদ্ধে কোনো মামলাই রেকর্ড করেনি। এটা অত্যন্ত ন্যক্কারজনক ঘটনা। আমরা মামলাটি আইনিভাবে মোকাবিলা করব।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন