বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক আবদুল ওয়াদুদ প্রথম আলোকে বলেন, আমিনুল ইসলাম নামের একজন রোগীকে মেডিকেল কলেজের অর্থোপেডিকস বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁর দুই পায়ের রগে জখম হয়েছে। অস্ত্রোপচারের আগে বলা যাচ্ছে না কতটুকু জখম হয়েছে। তবে এখন তিনি শঙ্কামুক্ত।

সোমবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত মাঝিহট্ট বাজার ছাড়াও ইউনিয়নের কয়েকটি এলাকায় দফায় দফায় এই সহিংসতার ঘটনা ঘটে।

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী অটোরিকশা প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী এসকেন্দার আলী দাবি করেন, মাঝিহট্ট বাজারে পুলিশের উপস্থিতিতেই নৌকার সমর্থকেরা অটোরিকশার সমর্থকদের ওপর হামলা করেছেন। এ সময় হামলাকারীরা প্রকাশ্যে একজন কর্মীর পায়ের রগ কাটার চেষ্টা করেছেন। নৌকার প্রার্থী ও মাঝিহট্ট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল গফুরের নেতৃত্বেই এই হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

এসকেন্দার আলীর সমর্থকেরা বলেন, সোমবার দুপুর ১২টার দিকে অটোরিকশার সমর্থনে কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে প্রচারণায় বের হন এসকেন্দার আলী। এ সময় মাঝিহট্ট ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বারিকতলা এলাকায় নৌকার সমর্থকেরা হামলা চালান। তখন অটোরিকশার প্রার্থী ও কর্মীদেরও বেধড়ক মারধর করা হয়। একপর্যায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আমিনুল ইসলাম নামের একজন কর্মীর পায়ের রগ কাটার চেষ্টা করেন নৌকার সমর্থকেরা। নৌকার সমর্থকদের হামলায় অটোরিকশার ৭-৮ জন কর্মী আহত হন। এ সময় চারটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়।

তবে নৌকার প্রার্থী আবদুল গফুর পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, সোমবার সকাল আটটার দিকে মাঝিহট্ট বাজারে নৌকার গণসংযোগে গেলে অটোরিকশার সমর্থকেরা হামলা করেন। এ ছাড়া বিকেলের দিকে অটোরিকশার কর্মীরা মোড়াইল এলাকায় নৌকার ৫ জন কর্মীর বসতবাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর করেন। এ সময় তাঁরা বেশ কয়েকটি খড়ের গাদায় অগ্নিসংযোগও করেন। এ ঘটনায় তাঁদের তরফে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, দুই পক্ষের সহিংসতার ঘটনার পর মাঝিহট্ট বাজারে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এখনো থানায় কোনো পক্ষ মামলা করেনি। পুলিশের উপস্থিতিতে সহিংসতার কোনো ঘটনা ঘটেনি। সকালে সহিংসতার খবর পেয়ে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়।

এর আগে গত বুধবার রাতে অটোরিকশার প্রার্থীর ১০টি নির্বাচনী কার্যালয়ে হামলা ও ভাঙচুর করেন নৌকার সমর্থকেরা। এ ঘটনায় অটোরিকশার প্রার্থী এসকেন্দার আলী লিখিত অভিযোগ করেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন