default-image

চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার মতলব পৌরসভার নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী ও তাঁর কর্মীদের আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকেরা হুমকি দিচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ জন্য গত দুই দিন প্রচারণা বন্ধ রেখেছেন বলে দাবি করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী এনামুল হক।

প্রতিকার চেয়ে আজ সোমবার জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন এনামুল হক। এর আগে গত বৃহস্পতিবার তিনি প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) বরাবরও লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন তিনি। ২৮ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

লিখিত অভিযোগে এনামুল হক উল্লেখ করেন, মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করার পর থেকে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আওলাদ হোসেনের কর্মী-সমথর্করা নানাভাবে তাঁকে ভয়ভীতি দেখিয়ে হুমকি দিচ্ছেন। তাঁকে ও তাঁর কর্মীদের এলাকায় না থাকার জন্যও চাপ দেওয়া হচ্ছে। এ কারণে গত কয়েক দিন তিনি ও তাঁর কর্মীরা প্রকাশ্যে এলাকায় অবস্থান করতে পারছেন না।

বিজ্ঞাপন

এনামুল হক আরও অভিযোগ করেন, তিনি ও তাঁর কর্মীরা গত বৃহস্পতি ও শুক্রবার ওই পৌরসভার মুন্সিরহাট, দূরগাঁও, ভাঙ্গারপাড়, নবকলস, ভাঙারপাড়, চরমুকুন্দি, ঢাকিরগাঁও, বোয়ালিয়াসহ আরও কয়েকটি এলাকায় ভোটের প্রচার চালাতে গেলে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর লোকেরা তাঁকে ও তাঁর কর্মীদের বাধা দেন। এসব এলাকায় তাঁর প্রায় সাত হাজার পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হয়। প্রতিবাদ করলে চরমুকুন্দি এলাকার মোহন মিয়া নামের তাঁর এক কর্মীকে বেধড়ক পেটানো হয়। আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর লোকজনের হুমকিতে গতকাল ও আজ সোমবার তিনি বা তাঁর কর্মীরা ধানের শীষের প্রচারণা চালাতে পারেননি।

এনামুল হক বলেন, এবার এ নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে কি না, তা নিয়ে তিনি যথেষ্ট সন্দিহান। সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য তিনি স্থানীয় প্রশাসন, রিটার্নিং কর্মকর্তা, পুলিশ ও সিইসির কাছে দাবি জানান।

আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আওলাদ হোসেন বলেন, তাঁর কর্মী-সমর্থকেরা বিএনপির মেয়র প্রার্থী বা তাঁর লোকদের ভোটের প্রচারণায় বাধা দেননি। এ-সংক্রান্ত হুমকিও দেননি।

রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. তোফায়েল আহম্মেদ বলেন, এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন