বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সংবাদ সম্মেলনে বড় হরিশপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সভাপতি সেলিম রেজা ও সাধারণ সম্পাদক আছলামুর রহমানসহ ৯টি ওয়ার্ডের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকেরা উপস্থিত ছিলেন। সবার পক্ষে লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান সাধারণ সম্পাদক আছলামুর রহমান।

লিখিত বক্তব্যে আওয়ামী লীগ নেতা আছলামুর রহমান বলেন, বিতর্কিত চেয়ারম্যান ওসমান গণি ভূঁইয়াকে আবারও চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। তিনি নৌকা প্রতীকের অযোগ্য দাবি করে নেতারা বলেন, ওসমান গণি স্বাধীনতাযুদ্ধে অংশ না নিয়েও মুক্তিযোদ্ধা দাবি করেন। মনোনয়ন পাওয়ার এক দিন পর তাঁর ছেলে বড় হরিশপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাঙচুর করেন। তাঁর বিরুদ্ধে সরকারি খাল খনন করে মাটি বাইরে বিক্রি করাসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। ২০১৭-১৮ সালে পরিষদের সব সদস্য তাঁর প্রতি অনাস্থা দিয়েছিলেন। এসব কারণে তাঁরা মনোনয়ন বাতিল চান।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতা বলেন, ওসমান গণি ভূঁইয়ার মনোনয়ন বাতিল করা না হলে তাঁরা দলীয় পদ থেকে পদত্যাগ করতে বাধ্য হবেন। সংবাদ সম্মেলনস্থলে দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশী ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। তিনি স্থানীয় সাংসদ ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলামের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। অন্যদিকে নৌকার মনোনয়ন পাওয়া চেয়ারম্যান প্রার্থী ওসমান গণি ভূঁইয়া সাবেক প্রতিমন্ত্রী আহাদ আলী সরকারের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন