default-image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ থেকে ফেনসিডিলসহ কিশোরগঞ্জের ভৈরব পৌরসভার এক কাউন্সিলরের দুই ছেলে ও স্থানীয় পত্রিকার এক সাংবাদিকসহ চারজনকে আটক করেছেন র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সদস্যরা। বৃহস্পতিবার বেলা দুইটার দিকে বিষয়টি গণমাধ্যমকর্মীদের জানান র‍্যাব সদস্যরা।
আটক ব্যক্তিরা হলেন কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামের বাসিন্দা ও ভৈরব পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোশারফ হোসেন ওরফে মিন্টুর ছেলে নাঈম হোসেন (২০) ও তাঁর ছোট ভাই আবিদ হোসেন (১৯), উপজেলার তাতারকান্দি গ্রামের বাসিন্দা ও ভৈরব থেকে প্রকাশিত স্থানীয় দৈনিক পত্রিকার নিজস্ব প্রতিবেদক হৃদয় আজাদ (২৩) এবং কমলপুর মধ্যপাড়া গ্রামের রুবেল মিয়া (২১)।

বিজ্ঞাপন

র‍্যাব সূত্রে জানা গেছে, একটি চক্র ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলার সীমান্ত এলাকা থেকে মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে গাড়িতে করে জেলার বিভিন্ন এলাকাসহ বিভিন্ন জেলায় পাইকারি ও খুচরা বিক্রি করে থাকে বলে গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে র‍্যাব। বুধবার রাতে মাদকের একটি চালান আশুগঞ্জ দিয়ে জেলার বাইরে যাবে বলে নিশ্চিত হন র‍্যাব সদস্যরা। গতকাল বুধবার রাত সোয়া ১০টার দিকে র‍্যাব-১৪ ভৈরব ক্যাম্পের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বেলায়েত হোসাইনের নেতৃত্বে একটি আভিযানিক দল আশুগঞ্জের সৈয়দ নজরুল ইসলাম সেতু এলাকায় অভিযান চালায়। সেতুর ২০০ গজ পূর্বে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে তাৎক্ষণিক তল্লাশিচৌকি স্থাপন করে র‌্যাব। এ সময় একটি জিপ গাড়িকে থামতে নির্দেশ দেন র‍্যাব সদস্যরা। পরে গাড়ির ভেতরে তল্লাশি চালিয়ে একটি ব্যাগ থেকে ৬৬ বোতল ফেনসিডিল, একটি মোটরওয়ালা ব্র্যান্ডের ওয়াকিটকি, স্টিলের লাঠি, মাদক বিক্রির নগদ ৭০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। তাঁদের বিরুদ্ধে আশুগঞ্জ থানায় মামলা হয়েছে।
র‍্যাব-১৪ ভৈরব ক্যাম্পের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিউদ্দীন মোহাম্মদ যোবায়ের জানান, গাড়িতে থাকা ব্যক্তিদের কাছ থেকে মাদক উদ্ধার করা হয়। এ সময় তাঁদের গাড়িটিও জব্দ করা হয়। উদ্ধারকৃত আলামতের আনুমানিক বাজারমূল্য ৩৫ লাখ ২০ হাজার টাকা।

মন্তব্য পড়ুন 0