default-image

চট্টগ্রাম নগরের লালখান বাজার মতিঝরনা এলাকায় ঘরে আটকে রেখে এক তরুণীকে (১৯) গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার সন্ধ্যায় স্থানীয় লোকজন মেয়েটিকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। পুলিশ বলছে, এখনো ঘটনা স্পষ্ট নয়, তাঁরা ঘটনাস্থলে আছেন।

চমেক হাসপাতালের উপপরিদর্শক শীলাব্রত বড়ুয়া জানান, স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হওয়া একটি মেয়ে কুমিল্লা থেকে চট্টগ্রাম আসেন। তাঁর থাকার কোনো জায়গা ছিল না। তখন মতিঝরনা এলাকার মনির আহমদ কৌশলে মেয়েটিকে আশ্রয় দেবে বলে শুক্রবার তাঁর বাটালি হিলের বাসায় নিয়ে যান। শনিবার সকালে মনিরের স্ত্রী গার্মেন্টেসে চলে গেলে মনিরসহ পাঁচজন মিলে তাঁকে ধর্ষণ করেন বলে মেয়েটি পুলিশকে জানান। তিনি বর্তমানে ওয়ান–স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে চিকিৎসাধীন।

মতিঝরনা ১৪ নম্বর গলির যে বাড়িতে ঘটনা ঘটেছে, তা ছগির আহমদের। ঘটনার জন্য ভাড়াটিয়া মনির আহমদকে এ জন্য অভিযুক্ত করেন ছগির আহমদ। তিনি লালখান বাজার জামে মসজিদের মুয়াজ্জিন। ছগির আহমদের ভাষ্য, মনির ও তাঁর স্ত্রী বাসার তিনতলায় ভাড়া থাকেন। মনির এক দিন আগে অসহায় এক মেয়েকে ঘরে থাকার আশ্রয় দেন। পরে স্ত্রীর অনুপস্থিতেত তাঁকে কয়েকজন সঙ্গী মিলে মনির নির্যাতন করেন বলে অভিযোগ। এলাকার লোকজন মেয়েটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।

খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শাহীনুজ্জামান বলেন, তাঁরা ঘটনাস্থলে আছেন। এখনো পুরো ঘটনা স্পষ্ট নয়। তবে একটি মেয়ে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন এলাকার লোকজন। মেয়েটি হাসপাতালে রয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0