default-image

পিরোজপুরে আসামিকে গ্রেপ্তার করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন পুলিশের পাঁচ সদস্য। গতকাল রোববার দিবাগত রাত দুইটার দিকে পিরোজপুর পৌরসভার কুমারখালী মহল্লায় সিকদারবাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে সাতজনকে আটক করা হয়েছে।

হামলায় আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন পিরোজপুর সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সৈকত হোসেন, এসআই মাহামুদুল হাসান, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. খাইরুল হাসান, সাইফুল ইসলাম ও কনস্টেবল মারুফ হোসেন। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন ও জড়িতদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে বলে জানান পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরুল ইসলাম।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি পিরোজপুর সিভিল সার্জন কার্যালয়ের ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা চুরি হয়। গতকাল রাতে পিরোজপুর সদর থানার পুলিশের একটি দল চুরির ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে কুমারখালী মহল্লার আনোয়ার সিকদারের ছেলে হাসান সিকদারকে আটক করতে যায়। হাসান সিকদারকে আটক করার পর আসামিপক্ষের লোকজন ও দুর্বৃত্তরা হাসান সিকদারকে ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য পুলিশের ওপর হামলা করে। এতে পুলিশের পাঁচ সদস্য আহত হয়েছেন। আহত এএসআই মো. খাইরুল হাসান ও কনস্টেবল মারুফ হোসেনকে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত অপর তিন পুলিশ সদস্যকে দেওয়া হয়েছে প্রাথমিক চিকিৎসা।

বিজ্ঞাপন

পিরোজপুর সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তারেক আজিজুল্লাহ বলেন, গভীর রাতে পাঁচ পুলিশ সদস্যকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তাঁদের মধ্যে দুজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ ছাড়া দুজন আসামিকেও আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আনা হয়েছে।

পিরোজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোল্লা আজাদ হোসেন বলেন, চুরির মামলার সন্দেহভাজন আসামি আটক করতে গিয়ে আসামিপক্ষের লোকজনের হামলায় পাঁচজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় সাতজনকে আটক করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন