default-image

নারায়ণগঞ্জ শহরের পশ্চিম তল্লা এলাকায় বাইতুস সালাত জামে মসজিদে বিস্ফোরণে দগ্ধ মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক হান্নান সাউদ (৫০) মারা গেছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইউনিট ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক। এ নিয়ে বিস্ফোরণের ঘটনায় দগ্ধ হয়ে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক, ইমাম, মুয়াজ্জিনসহ ২৮ জনের মৃত্যু হলো।

বিজ্ঞাপন

ইউএনও নাহিদা বারিক জানান, হান্নান সাউদের শরীরের ৮৫ শতাংশ পোড়ার কারণে শ্বাসনালি পুড়ে গিয়েছিল, সঙ্গে ডায়াবেটিস ছিল। নিহতের পরিবারকে লাশ দাফনে ২০ হাজার টাকা অনুদান প্রদান করা হবে। তিনি জানান, বর্তমানে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইউনিট ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন আছেন আটজন।

বিজ্ঞাপন
তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ লিকেজ সারাতে তাঁর কাছে ৫০ হাজার টাকা ঘুষ চেয়েছিল। তাঁর কাছে কে ঘুষের টাকা চেয়েছিল, তা তিনি জানাতে পারতেন।
আবদুল গফুর, সভাপতি, বাইতুস সালাত জামে মসজিদ কমিটি

তিতাস গ্যাসের লিকেজ সারাতে যোগাযোগ করলে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক হান্নান সাউদের কাছে ৫০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করা হয় বলে অভিযোগ ওঠে। তিতাসের বিরুদ্ধে গ্যাসের লিকেজ সারাতে ঘুষ দাবি অভিযোগটি নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এদিকে তিতাসের পাইপলাইনে দুটি ছিদ্র বের হওয়ার সোমবার বিকেলে তিতাসের চার কর্মকর্তাসহ আটজনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

মসজিদ কমিটির সভাপতি আবদুল গফুর জানান, গ্যাসের লিকেজ সারাতে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক হান্নান সাউদ তিতাস গ্যাসের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন। তখন তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ লিকেজ সারাতে তাঁর কাছে ৫০ হাজার টাকা ঘুষ চেয়েছিল। তাঁর কাছে কে ঘুষের টাকা চেয়েছিল, তা তিনি জানাতে পারতেন।

বিজ্ঞাপন

গত শুক্রবার রাত সাড়ে আটটার দিকে নারায়ণগঞ্জ শহরের পশ্চিম তল্লা এলাকায় বাইতুস সালাত জামে মসজিদে বিকট শব্দে বিস্ফোরণে অর্ধশতাধিক মুসল্লি দগ্ধ হন। এর মধ্যে রোববার ভোর পর্যন্ত এক শিশুসহ বাইতুস সালাত জামে মসজিদের ইমাম আবদুল মালেকসহ ২৭ জনের মৃত্যু হয়। ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট ও পাইপলাইনের লিকেজ থেকে গ্যাস জমে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।

মন্তব্য পড়ুন 0