default-image

পটুয়াখালীর গলাচিপায় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহিন শাহের বিরুদ্ধে গলাচিপা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে। অকথ্য ভাষায় গালাগাল এবং খুন–জখমের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ এনে এই জিডি করেছেন উপজেলার চর কাজল ইউনিয়নের ৪, ৫, ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য মোসা. শাহনাজ বেগম।

গতকাল সোমবার রাতে করা জিডিতে শাহানাজ বেগম অভিযোগ করেন, তিনি চর কাজল ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। ২৩ এপ্রিল ইউনিয়নের বুড়াগৌরঙ্গ নদের একটি খাল নিয়ে স্থানীয় জেলে এবং খালের ইজারাগ্রহীতার মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তাঁকে তাঁর কার্যালয়ে হাজির হওয়ার জন্য বলেন। ২৫ এপ্রিল সকালে শাহনাজ বেগম ইউএনওর সঙ্গে দেখা করেন। তিনি ইউএনওর কক্ষ থেকে বের হওয়ার পর আসাদুল নামের এক ব্যক্তিকে দিয়ে শাহনাজ বেগমকে তাঁর কক্ষে ডেকে পাঠান উপজেলা চেয়ারম্যান। এ সময় শাহনাজ বেগম উপজেলা চেয়াম্যানের কক্ষে ঢুকলেই চেয়ারম্যান শাহিন শাহ তাঁকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল এবং খুন–জখমের হুমকি দেন। এ ছাড়া তাঁর (উপজেলা চেয়ারম্যান) বিরুদ্ধে কথা বললে হাত-পা ভেঙে দেবেন বলে হুমকি দেওয়া হয়। শাহিন শাহ যেকোনো সময় তাঁর ক্ষতিসাধান করতে পারেন বলেও জিডিতে উল্লেখ করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম আর শওকত আনোয়ার হোসেন বলেন, জিডিটি আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদালতের অনুমতি পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শাহানাজ বেগম মুঠোফোনে বলেন, তিনি বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও জনপ্রতিনিধি। এলাকার গরিব জেলেদের পক্ষে কথা বলেছিলেন। এ কারণে ক্ষিপ্ত হয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহিন শাহ তাঁকে এভাবে নোংরা ভাষায় গালাগাল ও খুন–জখমের হুমকি দেন।

তবে উপজেলা চেয়ারম্যান শাহিন শাহ মুঠোফোনে তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন বলে দাবি করে বলেন, রাজনৈতিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন করার জন্য একটি মহল তাঁর বিরুদ্ধে এভাবে মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন