বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চাঁদপুর শহরের নাছিরপাড়ার বাসিন্দা সাখাওয়াত হোসেন বলেন, ‘ভরা মৌসুমে ইলিশ কিনতে এসে দাম দেখে হতাশ। কারণ, ইলিশের এত দাম জীবনে প্রথম দেখলাম। তারপরও ছোট ছোট ৭০০ থেকে ৮০০ গ্রাম ওজনের ৪টি ইলিশ কিনেছি ৪ হাজার টাকায়।’

বাজার ঘুরে দেখা গেছে, ইলিশ কিনতে ঘাটে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়। কিন্তু সাধারণ ক্রেতারা ইলিশের দাম দেখে খালি হাতে চলে যাচ্ছেন। তবে ঢাকাসহ আশপাশের বিভিন্ন জেলা থেকে আসা শৌখিন ক্রেতারা দামের দিকে না তাকিয়ে বাক্স ভরে ভরে ইলিশ নিয়ে যাচ্ছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষক তাঁর স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে ইলিশ কিনতে আসেন। তিনি ১ হাজার ৩০০ টাকা দরে ২০টি ইলিশ কিনে নিয়ে যান। তিনি বলেন, ‘ইলিশের ভরা মৌসুমে চাঁদপুরে এসে তাজা ইলিশ সব সময়ই কিনে নিয়ে যাই।’

ভরা মৌসুমে ইলিশের এত দাম বাড়ার কারণ হিসেবে মৎস্য ব্যবসায়ীরা বলেন, বাজারে ইলিশ কম আসছে। কিন্তু ইলিশের চাহিদা বেড়েছে বহুগুণ। বিশেষ করে ২২ দিনের মা ইলিশ রক্ষা অভিযান ঘিরে নদীতে সব ধরনের মাছ ধরা বন্ধ রাখা, ইলিশ কেনাবেচা, পরিবহন, মজুত নিষিদ্ধ থাকার ঘোষণায় এবার অন্যবারের চেয়ে ইলিশের দাম প্রায় দ্বিগুণ। অথচ ইলিশের ক্রেতাও বেড়েছে। কিন্তু ইলিশ কম থাকায় ক্রেতাদের চাহিদা পূরণ করা যাচ্ছে না।

মাছঘাটের এক আড়তদার বলেন, ‘আমরা স্থানীয় ক্রেতাদের চাপ সামলাতেই হিমশিম খাচ্ছি। কারণ, মানুষের চাহিদা চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনার ইলিশের। কিন্তু সেই মাছ একেবারেই কম। তবে নোয়াখালী, ভোলা, বরিশাল অঞ্চলের কিছু ইলিশ আমদানি থাকায় আমরা সেই চাহিদা পূরণ করতে পারছি। ফলে ক্রেতাদের চাহিদার কারণে ইলিশের দাম দ্বিগুণ বেড়ে গেছে।’

চাঁদপুর মৎস্য বণিক সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক শবে বরাত বলেন, ‘গত বছর এ সময় যে ইলিশের দাম ৭০০ থেকে ৮০০ টাকা ছিল, এবার সেই ইলিশ প্রায় দ্বিগুণ দামে বিক্রি হচ্ছে। মাছের চাহিদা অনুপাতে আমদানি কম থাকায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এ জন্য অনলাইনেও ইলিশ বিক্রি কমিয়ে দিয়েছি।’

চাঁদপুর মৎস্য সমবায় সমিতির সভাপতি আবদুল বারি জমাদার বলেন, ৪ অক্টোবর থেকে ২২ দিনের মা ইলিশ রক্ষা অভিযান শুরু হবে বলে ঘাটে ইলিশ ক্রেতাদের ভিড় বেড়েছে। এ জন্য ইলিশের দাম তুলনামূলক বেশি।

চাঁদপুর সদর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সুদীপ ভট্টাচার্য বলেন, মা ইলিশ রক্ষা অভিযান শুরু হবে শুনে ঘাটে ক্রেতাও বেড়েছে। এ সুযোগে জেলে ও ব্যবসায়ীরাও ইলিশের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন