বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সাজেক পর্যটনকেন্দ্রের রিসোর্ট-কটেজের মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জেরি লুসাই প্রথম আলোকে বলেন, ‘ঈদের ছুটি উপলক্ষে আমাদের রিসোর্ট-কটেজের টানা তিন দিন সব কক্ষ বুকিং হয়ে গেছে। আগামী ৫, ৬ ও ৭ মে সব কক্ষ আগাম বুকিং হয়ে যায়।’

গত চার দিনে রাঙামাটি শহরের বিভিন্ন হোটেল-মোটেলগুলোরও ৫০ শতাংশ বুকিং হয়ে গেছে। পর্যটনের সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রাঙামাটি শহরে হোটেল-মোটেল মালিক সমিতির ৫৫টি আবাসিক হোটেল-মোটেল রয়েছে। এসব হোটেলে দৈনিক পাঁচ হাজারের বেশি মানুষ থাকতে পারেন।

আগামী দুই দিনে ৮০ শতাংশ হোটেল-মোটেলের কক্ষ বুকিং রয়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। ২ মে থেকে ৪ মের জন্য বেশি বুকিং পাওয়া যাচ্ছে। এর মধ্যে রাঙামাটি পর্যটন কমপ্লেক্স ও শহরের অন্তত আটটি হোটেল-মোটেল সব কক্ষ বুকিং হয়েছে।

রাঙামাটি হোটেল-মোটেল মালিক সমিতির সভাপতি মো. মঈন উদ্দিন সেলিম প্রথম আলোকে বলেন, আগামী কয়েক দিনের মধ্যে আরও কক্ষ বুকিং হওয়ার কথা রয়েছে। ইতিমধ্যে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত পর্যটকেরা থেকে কক্ষ বুকিংয়ের জন্য মুঠোফোনে যোগাযোগ করছেন।

রাঙামাটি পর্যটন কমপ্লেক্সের ব্যবস্থাপক সৃজন বিকাশ বড়ুয়া বলেন, ‘গত চার দিনে ধরে আমাদের কক্ষের ৫০ শতাংশ বুকিং হয়ে গেছে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে আরও অন্তত ৪০ শতাংশ কক্ষ বুকিং হওয়ার আশা করছি।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন