প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকেল পৌনে পাঁচটার দিকে কামরুল চাতালের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন। হঠাৎ সেখানে পরপর দুটি গুলির শব্দ শোনা যায়। গুলির পরপরই লোকজন কামরুলকে রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে যেতে দেখেন। এ সময় হেলমেট পরা এক ব্যক্তিকে সেখান থেকে মোটরসাইকেলযোগে দ্রুত পালিয়ে যেতে দেখা যায়। পরে স্থানীয় লোকজন আহত কামরুলকে উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে কিছুক্ষণ পরই তাঁকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

গুলির পরপরই লোকজন কামরুলকে রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে যেতে দেখেন। এ সময় হেলমেট পরা এক ব্যক্তিকে সেখান থেকে মোটরসাইকেলযোগে দ্রুত পালিয়ে যেতে দেখা যায়।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও দাশুড়িয়া মোড়ের বাসিন্দা তুহিন হোসেন বলেন, কামরুলের হাতে ও বুকে দুটি গুলি লেগেছে। প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সন্ধ্যায় প্রথম আলোকে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। তবে আহত ব্যক্তির পরিবারের পক্ষ থেকে তখনো কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন