default-image

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় স্কুলছাত্রীদের উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বখাটেদের হামলায় দুটি পরিবারের সাতজন আহত হয়েছেন। তাহিরপুর উপজেলার টাকাটুকিয়া গ্রামে গতকাল বুধবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। রাতে মামলা দায়েরের পর পুলিশ পার্শ্ববর্তী টুকেরগাঁও গ্রামের সিরাজ মিয়া (৪৫) ও আবদুস শহীদ (৫০) নামের দুজনকে গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, টাকাটুকিয়া গ্রামের কয়েকজন স্কুলছাত্রীর বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসার পথে উত্ত্যক্ত করতেন পাশের টুকেরগাঁও গ্রামের কয়েকজন তরুণ। এ নিয়ে একাধিকবার গ্রামে সালিসও হয়েছে। সালিসে ওই তরুণেরা আর এসব করবেন না বলে অঙ্গীকার করেন। কিন্তু এরপরও উত্ত্যক্ত করা অব্যাহত ছিল। গতকাল বিকেলে এই গ্রামের এক তরুণ বখাটেদের সেখানে দেখে কারণ জানতে চান। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওই তরুণেরা তাঁকে মারধর শুরু করেন। তাঁকে বাঁচাতে যাঁরা এগিয়ে যান, ওই তরুণেরা তাঁদের ওপর হামলা চালান। এতে সাতজন আহত হন। তাঁদের মধ্যে তিনজনকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁদের পিঠে, হাতে ও মাথায় জখম আছে।

তাহিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান করুণা সিন্ধু চৌধুরী বলেন, ‘ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক। আমরা ঘটনার পরপরই হামলার শিকার লোকজনের খোঁজখবর নিয়েছি। উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশকে বিষয়টি সঙ্গে সঙ্গে জানানো হয়েছে। আমরা চাই দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হোক।’

তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল লতিফ তরফদার বলেন, এ ঘটনায় গতকাল রাতে টুকেরগাঁও গ্রামের ১৩ জনকে আসামি করে থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ রাতেই দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে। অন্যদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন