default-image

উন্নত চিকিৎসার জন্য অ্যাম্বুলেন্সে করে বরিশালের উজিরপুরের খাদিজা বেগমকে (৫০) ঢাকায় নিয়ে যাচ্ছিলেন পরিবারের সদস্যরা। পথে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে অ্যাম্বুলেন্সটি খাদে পড়ে গেলে ১৭ বছরের ভাতিজাসহ ঘটনাস্থলেই প্রাণ যায় খাদিজার। আহত হন অ্যাম্বুলেন্সের চালকসহ তিনজন।

আজ শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে মাদারীপুরের শিবচরের কুতুবপুর এলাকায় ঢাকা-খুলনা এক্সপ্রেসওয়েতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত খাদিজা ও তাঁর ভাতিজা মেহেদী হাসানের (১৭) বাড়ি উজিরপুরের পূর্ব বামুড়া এলাকায়।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী লোকজনের কাছ থেকে জানা যায়, রোগী খাদিজা বেগমের চিকিৎসার জন্য উজিরপুর থেকে ঢাকায় যাচ্ছিলেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা। এক্সপ্রেসওয়ের কুতুবপুরের বড় কেশবপুর এলাকায় এলে তাঁদের বহনকারী অ্যাম্বুলেন্স নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে খাদে পড়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থলেই খাদিজা বেগম ও তাঁর ভাতিজা মেহেদী হাসান মারা যান।

দুর্ঘটনায় আহত হন অ্যাম্বুলেন্সের চালক বাসার মিয়াসহ তিনজন। পরে স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে শিবচর উপজেলার পাঁচ্চর রয়েল হাসপাতালে ভর্তি করেন। প্রত্যক্ষদর্শী হায়দার মাহামুদ বলেন, দ্রুত গতিতে আসা অ্যাম্বুলেন্সটি প্রথমে এক্সপ্রেসওয়ের একটি খুঁটির সঙ্গে ধাক্কা খায়। পরে তা উল্টে খাদে পড়ে যায়।

শিবচর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহরাব আহমেদ মজুমদার বলেন, দুর্ঘটনার খবর পেয়েই হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। অ্যাম্বুলেন্সটি ঢালু বড় একটি খাদে পড়ে দুমড়েমুচড়ে যায়। উদ্ধার করা লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন