বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত সোমবার রাতে ডোমসারের ভর্তাইসার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মিজান মোহাম্মদ খানের একটি নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য দেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হাসেম তপাদার। তিনি বিভিন্ন হুমকি ও উসকানিমূলক বক্তব্য দেন অভিযোগে বলা হয়। ওই বক্তব্যের ৬ মিনিট ২৫ সেকেন্ডের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এ নিয়ে ‘নৌকার বিপক্ষে ভোট চাওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে না’ শিরোনামে মঙ্গলবার প্রথম আলোতে সংবাদ প্রকাশ করা হয়।

ডোমসার ইউপি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ‘স্বতন্ত্র প্রার্থীর একটি অভিযোগ আমি পেয়েছি। অভিযোগটি ছিল হুমকি ও হামলাসংক্রান্ত। তাই ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে তা থানায় পুলিশের কাছে পাঠানো হয়েছে।’

এ বিষয়ে বক্তব্য নেওয়ার জন্য মিজান মোহাম্মদ খানের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। মুঠোফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি ধরেননি।

অভিযোগের বিষয়ে শরীয়তপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হাসেম তপাদার বলেন, ‘আমার একটি বক্তব্য এডিট করে তাতে মিথ্যা তথ্য জুড়ে দিয়ে একটি চক্র সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়েছে। আর আমার কোনো সমর্থক কাউকে হামলা করেননি। আমিও কাউকে হুমকি দিইনি।

শরীয়তপুর সদরের পালং মডেল থানার ওসি আক্তার হোসেন বলেন, এক প্রার্থীর লিখিত অভিযোগ রিটার্নিং কর্মকর্তা থানায় পাঠিয়েছেন। বিষয়টির তদন্ত করা হচ্ছে। সত্যতা পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

১১ নভেম্বর শরীয়তপুর সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন