বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে হাইওয়ে পুলিশ জানায়, আজ সকালে সুমিত্রা দাস একটি ইঞ্জিনচালিত ভ্যানে সদর উপজেলার ফুলবাড়িয়া গ্রামের বাড়ি থেকে যশোর-ঝিনাইদহ মহাসড়ক দিয়ে সাতমাইল বাজারে যাচ্ছিলেন। সকাল ছয়টার দিকে ভ্যানটি সাতমাইল বাজার এলাকায় পৌঁছায়। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি যাত্রীবাহী বাস ভ্যানটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ভ্যান থেকে সড়কের ওপর ছিটকে পড়ে সুমিত্রা দাস ঘটনাস্থলে মারা যান।

পুলিশ জানায়, সকালে রাজন আহমেদ সদর উপজেলার ফুলবাড়িয়া গ্রামের বাড়ি থেকে মোটরসাইকেল চালিয়ে সাতমাইল বাজারে যাচ্ছিলেন। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মোটরসাইকেলটি গ্রামীণ সড়ক থেকে যশোর-ঝিনাইদহ মহাসড়কে ওঠে। এ সময় পেছন দিক থেকে একটি ট্রাক মোটরসাইকেলটিতে ধাক্কা দেয়। এতে সড়কের ওপর ছিটকে পড়ে রাজন ঘটনাস্থলে মারা যান।

বারোবাজার হাইওয়ে পুলিশ মরদেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। বারোবাজার হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ মেজবাহ উদ্দিন জানান, ট্রাক ও যাত্রীবাহী বাস পালিয়ে গেছে। দুটি যান শনাক্তের চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন