default-image

আগামী এক মাসের মধ্যে খুলনা শহরে পর্যাপ্ত গণপরিবহন (বাস) চালু, খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (কেডিএ) অধীন সড়কসহ নগরের সব ভাঙাচোরা সড়ক দ্রুত সংস্কারসহ পাঁচ দফা দাবিতে মানববন্ধন হয়েছে।

বুধবার বেলা ১১টার দিকে নগরের দৌলতপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে যৌথভাবে ওই মানববন্ধনের আয়োজন করে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘আগুয়ান-৭১’ ও নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা)।

অন্যান্য দাবি হলো খুলনা নগর থেকে এক মাসের মধ্যে লাইসেন্সবিহীন সব গাড়ি উচ্ছেদ, নগরের মধ্যে চলাচলকারী মাহিন্দ্র-সিএনজি-ইজিবাইকের অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বন্ধ এবং ওই সব পরিবহনে সিটি করপোরেশন নির্ধারিত ভাড়া গাড়ির সঙ্গে সংযুক্ত করা।

বক্তারা বলেন, এই পাঁচ দফা দাবি শুধু আগুয়ান-৭১ বা নিসচার নয়, বরং এটি খুলনার গণমানুষের দাবি। খুলনা শহরে লোকাল বাস-গণপরিবহনের অভাব আজ নতুন নয়। শিক্ষার্থী থেকে শুরু করে প্রত্যেকেরই যাতায়াত বাবদ প্রতিদিন বড় অঙ্কের টাকা ব্যয় করতে হয়। অন্যদিকে সাধারণ যাত্রীদের জিম্মি করে মাহিন্দ্র, সিএনজি ও ইজিবাইক নিজেদের মতো করে ভাড়া বাড়িয়েই যাচ্ছে। নগরের বহুল ব্যবহৃত সড়কের যানবহনগুলোর এমন ভাড়া বৃদ্ধি সাধারণের স্বতঃস্ফূর্ত চলাচলের পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এসব অবৈধ ভাড়া বৃদ্ধি প্রত্যাহার করতে হবে এবং সিটি করপোরেশন নির্ধারিত ভাড়া প্রতিটি গাড়ির সঙ্গে যুক্ত থাকতে হবে।

বিজ্ঞাপন

বক্তারা আরও বলেন, নগরের মধ্যে কেডিএর অধীন যেসব সড়ক রয়েছে, সেগুলোর অবস্থা খুবই নাজুক। দিনের পর দিন সংস্কার না করায় তা ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। অন্যদিকে নগরের মধ্যে সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন সড়ক বেহাল হয়ে পড়েছে। ওই সব সড়ক দ্রুত সংস্কার করতে হবে।

মানুষের যাতায়াত ভোগান্তি কমাতে আগামী এক মাসের মধ্যে খুলনায় বিআরটিসির দুতলাবিশিষ্ট বাস চালু করার আহ্বান জানান বক্তারা।

নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) খুলনা মহানগর শাখার সভাপতি এস এম ইকবাল হোসেনের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা আগুয়ান-৭১–এর সভাপতি আবিদ শান্ত, নিসচা খুলনা মহানগরের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, খুলনা সিটি করপোরেশনের ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শেখ মোহাম্মদ আলী, আগুয়ান-৭১–এর উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য এল কে টফি, ইমদাদ আলী, সদস্য রৌফুন শাম্মী, সাদমান তুষার প্রমুখ। এ ছাড়া খুলনার বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ওই দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে মানববন্ধনে অংশ নেন।

মন্তব্য করুন