default-image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক সহসভাপতি (ভিপি) মো. নুরুল হকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে কুমিল্লার দেবীদ্বার থানায় মামলা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে কুমিল্লা উত্তর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা মো. লিটন সরকার বাদী হয়ে ওই মামলা করেন। ধর্মীয় মূল্যবোধে আঘাত করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে মামলাটি করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, গত বুধবার বিকেলে ফেসবুক লাইভে এসে নুরুল হক বলেন, ‘কোনো মুসলমান আওয়ামী লীগ করতে পারে না। যারা এই আওয়ামী লীগ করে, তারা চাঁদাবাজ, ধান্দাবাজ, মাদক ব্যবসায়ী, চিটার-বাটপার এই ধরনের মুসলমান। শুক্রবার এক দিন নামাজ পড়তে যাবে, আর পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের কোনো খবর নাই।’ নুরুল হক লাইভে আরও বলেন, আওয়ামী লীগের উগ্রবাদীরা আলেম-ওলামাদের নিয়ে যেভাবে বিদ্বেষ ছড়াচ্ছে, তাঁদের চরিত্র হরণ করছে, এরা মুসলমান হতে পারে না। এদের কোনো ইমান নাই। তাঁর এই বক্তব্য অগ্রহণযোগ্য। ধর্মীয় মূল্যবোধে আঘাত করে ফেসবুকে নুরুল হকের এই উসকানিমূলক বক্তব্য ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের বেশ কয়েকটি ধারার মধ্যে পড়ে।

ভিপি নুরের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮–এর ২৫ (২), ২৮ (২)/২৯ (১), ৩১ (২) ধারায় অভিযোগ করা হয়েছে।
হারুনুর রশিদ, মামলার আইনজীবী

মামলার সময় উপস্থিত ছিলেন আইনজীবী মো. হারুনুর রশিদ, কুমিল্লা উত্তর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য মো. সাদ্দাম হোসেন, কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগ নেতা যাদব রায় প্রমুখ। মামলার আইনজীবী হারুনুর রশিদ বলেন, ভিপি নুরের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮–এর ২৫ (২), ২৮ (২)/২৯ (১), ৩১ (২) ধারায় অভিযোগ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

দেবীদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত (ওসি) মো. আরিফুর রহমান বলেন, ‘লিটন সরকার তাঁর আইনজীবীর মাধ্যমে বৃহস্পতিবার বিকেলে মামলার আবেদন করেন। পরে আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে রাতে মামলা গ্রহণ করি। এ বিষয়ে তদন্ত করে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’

লিটন সরকার দেবীদ্বার উপজেলার বরকামতা ইউনিয়নের বাগুর এলাকার বাসিন্দা। তিনি কুমিল্লা-৪ (দেবীদ্বার) আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সাংসদ রাজী মোহাম্মদ ফখরুলের অনুসারী। তিনি কখনো মাদকবিরোধী আন্দোলন, কখনো সামাজিক নানা বিষয়ে মাঠে নামেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন