বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দৌলতদিয়ার ৫ নম্বর ফেরিঘাট এলাকার মাছ ব্যবসায়ী শাহজাহান শেখ বলেন, ‘সোমবার বেলা একটার দিকে সাগর শেখ মাছটি ধরার পর মুঠোফোনে আমাদের জানান। বেলা দেড়টার দিকে ফেরিঘাটে নিয়ে এলে ওজন করে দেখি কাতলাটি ১৫ কেজি ৮০০ গ্রামের। পরে দরদাম চূড়ান্ত হলে সাগরের কাছ থেকে ১ হাজার ৪৫০ টাকা কেজি দরে ২২ হাজার ৯০০ টাকায় কিনে নিই।’

শাহজাহান শেখ আরও বলেন, কাতলা মাছটি বিক্রির জন্য বিভিন্ন পরিচিত ব্যক্তির মুঠোফোন ও মেসেঞ্জারে ছবি ও ভিডিও পাঠাই। পরে ময়মনসিংহের ব্যবসায়ী ইমরান হোসেন মাছটি কেনার আগ্রহ দেখান। মাত্র আধা ঘণ্টার মধ্যে বেলা দুইটার দিকে তাঁর কাছে কেজিতে ৫০ টাকা লাভে ১ হাজার ৫০০ টাকা দরে ২৩ হাজার ৭০০ টাকায় বিক্রি করি।’

শাহজাহান শেখ জানান, গত এক সপ্তাহে পদ্মায় জেলেদের জালে ১০ থেকে ১২টি বড় বোয়াল, পাঙাশ, কাতলা ও বাগাড় জাতীয় মাছ ধরা পড়েছে। পানি কমতে থাকায় অনেক ধরনের মাছ ধরা পড়বে বলে তিনি আশাবাদী।

গোয়ালন্দ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা রেজাউল শরীফ বলেন, ইদানীং মাঝেমধ্যে বড় কাতলা, পাঙাশ, বোয়াল ও বাগাড় জাতীয় মাছ ধরা পড়ছে। এতে জেলেদের পাশাপাশি স্থানীয় মাছ ব্যবসায়ীরা লাভবান হচ্ছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন