বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদিকে লম্বায় ২৭ ইঞ্চি রানির উচ্চতা ছিল ২০ ইঞ্চি। ওজন ছিল ২৬ কেজি। সেটিও ছিল ভুট্টি জাতের গরু। গত ২০ আগস্ট অসুস্থ হয়ে রানি মারা যায়। এরপর গত মাসে গাজীপুরের শ্রীপুরে টুনটুনি নামের আরেক খর্বাকৃতির গরুর খোঁজ পাওয়া যায়। ৩৩ ইঞ্চি লম্বা টুনটুনির উচ্চতা ২৪ ইঞ্চি। আর ওজন ২২ কেজি। টুনটুনির বয়স ১৪ মাস।

টুনটুনি আর রানির সঙ্গে তুলনা করে আরাফাতের দাবি, তাঁর গরু মাফিনই এখন এখন দেশের সবচেয়ে ছোট গরু। ক্ষুদ্রাকৃতির গরু হিসেবে সাতক্ষীরা থেকে তিনি গরুটি সংগ্রহ করেছেন বলে জানান।

default-image

এদিকে খর্বাকৃতির এই গরুকে ঘিরে স্থানীয় মানুষ আরাফাতের বাড়িতে ভিড় জমাচ্ছেন। আজ শনিবার সকালে আরাফাতের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, বিভিন্ন বয়সী মানুষ মাফিনকে এক নজর দেখতে এসেছেন। ছোট শিশুরা আবার গরুর পাশে দাঁড়িয়ে নিজের উচ্চতা মিলিয়ে দেখছে। অনেকেই গরুটির সঙ্গে সেলফি তুলছেন। মাফিনকে পেতে অনেকে লাখ টাকাও দাম হাঁকছেন বলে জানা গেছে। তবে আরাফাত জানান, গরুটি বাণিজ্যিকভাবে বিক্রি না করে তিনি চিড়িয়াখানা অথবা প্রাণিসম্পদ গবেষণার কাজে দিতে চান।

রাজশাহী মহানগর পশুসম্পদ কার্যালয়ের চিকিৎসক ফজলে রাব্বী গরুটি দেখতে এসেছিলেন। তিনি গরুটির স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে জানিয়েছেন, এটি প্রাপ্তবয়স্ক এবং শারীরিকভাবে সুস্থ। জিনগত কারণে গরুটি ছোট আকৃতির হতে পারে বলে জানা তিনি। তবে এই গরুর চেয়ে আর কোনো ছোট গরু আছে কি না, সেটি তিনি নিশ্চিত করতে পারেননি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন