বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার বাদাঘাট সরকারি কলেজ কেন্দ্র থেকে অন্যদের সঙ্গে পরীক্ষা দিয়ে বের হয় ওই ছাত্রী। কলেজের সামনের বাদাঘাট-ঘাগটিয়া সড়কে আসার পরই ওই ছাত্রী ও অন্যদের পথরোধ করেন মাহমুদুল ও তাঁর সহযোগীরা। ছাত্রীকে জোর করে একটি ইজিবাইকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন মাহমুদুল। ছাত্রীর চিৎকার শুনে অন্য ছাত্ররা এসে ইজিবাইক থেকে তাকে উদ্ধার করে। পরে মাহমুদুল ও তাঁর সহযোগীরা ঘটনাস্থল থেকে চলে যান।

বিকেলে ছাত্রীকে জোর করে ইজিবাইকে তুলে অপহরণচেষ্টার একটি ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিওতে দেখা যায়, ওই ছাত্রীকে আরও কয়েকজনের পাশ থেকে ধরে জোর করে একটি ইজিবাইকে তুলছেন মাহমুদুল হাসান। এ সময় ওই ছাত্রী চিৎকার করেন। পরে বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশ গতকাল রাতে মাহমুদুল হাসানকে আটক করে।

তাহিরপুর থানার ওসি আবদুল লতিফ তরফদার বলেন, এ ঘটনায় আজ বুধবার সকালে তাহিরপুর থানায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ছয়জনকে আসামি করে একটি মামলা করেছেন। ওই মামলায় মাহমুদুল হাসানকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। মামলার অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন