default-image

কক্সবাজারের টেকনাফ ও উখিয়ায় পৃথক চারটি অভিযানে ৪ লাখ ৭০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করেছেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সদস্যরা। এসব ঘটনায় বিজিবি টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ থেকে একজন ও র‌্যাব হোয়াইক্যং থেকে একজন মাদক কারবারিকে আটক করেছে। তবে উখিয়ার ঘটনায় বিজিবি কাউকে আটক করতে পারেনি।

আটক দুজন হলেন টেকনাফ উপজেলার শাহপরীর দ্বীপ জালিয়াপাড়ার বাসিন্দা আবুল কালামের ছেলে মো. নুরুল আবছার (২২) ও টেকনাফের হোয়াইক্যং নয়াপাড়া বটতলীর মৃত ঠান্ডা মিয়ার ছেলে এরশাদ মিয়া (২৮)।

পৃথকভাবে প্রথম আলোকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান, কক্সবাজার র‌্যাব-১৫–এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া কর্মকর্তা) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী ও কক্সবাজার ৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ।

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রোববার সন্ধ্যা ৭টায় ২ বিজিবি টেকনাফে শাহপরীর দ্বীপ ডাঙ্গরপাড়ার মো. আমির হোসেনের বাড়িতে অভিযান চালায়। সেখানে ১ লাখ ৪০ হাজার ইয়াবাসহ একজনকে আটক করা হয়। একই দিন রাত সাড়ে ১১টায় ২ বিজিবি উপজেলার হোয়াইক্যং খারাংখালী বেড়িবাঁধ এলাকা থেকে পাচারকারীদের ফেলে যাওয়া ১ লাখ ইয়াবা উদ্ধার করে। এদিকে রোববার সন্ধ্যায় র‌্যাব-১৫ সদস্যরা হোয়াইক্যংয়ের উনছিপ্রাং শামীম ফার্মেসির সামনে প্রধান সড়ক থেকে ১০ হাজার ইয়াবাসহ একজনকে আটক করে। এ ছাড়া আজ সোমবার সকাল সাড়ে ৯টায় উখিয়া উপজেলার ৪ নম্বর রাজাপালং ইউনিয়নের জলিলেরগোদা আমবাগান সীমান্ত এলাকায় কক্সবাজার ৩৪ বিজিবি সদস্যদের সঙ্গে চোরাকারবারিদের গুলিবিনিময় হয়। পরে ফেলে যাওয়া লুঙ্গিতে মোড়ানো অবস্থায় ২ লাখ ২০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করেন বিজিবির সদস্যরা।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, আটক ব্যক্তিদের থানায় সোপর্দ করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন