default-image

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে তৈরি হয়েছে অন্য রকম বিশাল দেয়ালিকা। যেখানে ঠাঁই পেয়েছে ৩৮০ জন শিক্ষার্থীর ছড়া-কবিতা এবং ১৬০ জন শিক্ষার্থীর আঁকা ছবি। আর এই মহা কর্মযজ্ঞটি কক্সবাজারের সর্ববৃহৎ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ‘কক্সবাজার বায়তুশশরফ জব্বারিয়া একাডেমিতে। এই একাডেমিতে শিক্ষার্থী আছে প্রায় সাড়ে তিন হাজার।

আগামীকাল বুধবার সকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বিশেষ এই দেয়ালিকাটির উদ্বোধন করার কথা রয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা গেছে, একাডেমির বিশাল মাঠে বড় আকৃতির ২২টি কাগজ জোড়া লাগিয়ে দেয়ালিকাটি তৈরি হয়েছে। দেয়ালিকাটি দেখতে সেখানে ভিড় জমান শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ স্থানীয় নানা শ্রেণি–পেশার মানুষ।

বিজ্ঞাপন

বায়তুশশরফ কমপ্লেক্সের মহাপরিচালক এম এম সিরাজুল ইসলামের নির্দেশনায় বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা ২১ দিন ধরে পরিশ্রম করে দেয়ালিকাটি প্রস্তুত করেছেন। যেখানে ঠাঁই পেয়েছে ৩৮০ জন শিক্ষার্থীর ৩৮০টি ছড়া-কবিতা। ১৬০ জন শিক্ষার্থীর নিজ হাতে আঁকা বিভিন্ন ধরনের ছবি। লেখা হয় স্বাধীনতার মর্মবাণী নিয়ে বিশেষ সম্পাদকীয়। যেখানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান থেকে শুরু করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চলমান উন্নয়ন রাজনীতি তুলে ধরা হয়েছে। সম্পাদকীয় লিখেছেন একাডেমির সহকারী প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ তৈয়ব।

ঘটনাস্থলে বায়তুশশরফ কমপ্লেক্সের মহাপরিচালক এম এম সিরাজুল ইসলাম বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে দেয়ালিকা তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কোভিড-১৯–এর কারণে শিক্ষার্থীদের স্থবিরতা কাটাতে দেয়ালিকাটিকে হাতিয়ার হিসেবে কাজে লাগানোর উদ্যোগ নেন তিনি। বুধবার সকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বিদ্যালয়ের কারিগরি শিক্ষা ভবনের উদ্বোধন ও শাহ আবদুল জব্বার মিলনায়তনের ভিত্তিফলক উন্মোচনের পর বিশেষ দেয়ালিকাটির উদ্বোধন করার কথা রয়েছে। ইতিমধ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন