বিজ্ঞাপন

অক্সিজেন সিলিন্ডার হস্তান্তর অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ধর্মবিষয়ক সম্পাদক সিরাজুল মোস্তফা, সিভিল সার্জন মাহবুবুর রহমান, সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) এস এম নওশাদ রিয়াদ, আবুল খায়ের গ্রুপের রিজিওনাল অফিসার মনজুরুল হক প্রমুখ।

আবুল খায়ের গ্রুপের কর্মকর্তা মনজুরুল হক বলেন, করোনা সংকটের শুরু থেকে মানবিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে আবুল খায়ের গ্রুপ। এর আগেও জেলা প্রশাসনকে অক্সিজেন সিলিন্ডার দেওয়া হয়েছে। এখন সদর হাসপাতালে দেওয়া হচ্ছে। অক্সিজেন শেষ হলে কোম্পানি পুনরায় রিফিল করে দেবে।

সিভিল সার্জন মাহবুবুর রহমান, কক্সবাজারে করোনা শনাক্তের হার উদ্বেগজনকভাবে বাড়ছে। এতে সদর হাসপাতালের আইসোলেশন সেন্টারসহ অন্যান্য হাসপাতালে করোনা রোগীর চাপ বেড়েই চলেছে। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনা না গেলে করোনা রোগীর চিকিৎসায় ভয়াবহ সংকট দেখা দিতে পারে।

সদর হাসপাতালের আরএমও এস এম নওশাদ রিয়াদ প্রথম আলোকে বলেন, ২৫০ শয্যার এই হাসপাতালে ১০ শয্যার আইসিইউ, ৮ শয্যার এইচডিইউসহ করোনা রোগীর চিকিৎসায় এই হাসপাতালে ১১৯টি শয্যা ছিল। রোগীর চাপ বেড়ে যাওয়ায় গত সাত দিনে আরও ২১টি শয্যা বাড়ানো হয়েছে। এখন কোনো শয্যা খালি নেই।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন