বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নাটোর সদর থানা সূত্রে জানা যায়, গতকাল বিকেলে ইসমাইল হোসেন বাড়ি থেকে বের হয়ে জালালাবাদ বাজারে যান। বাজারে একটি চায়ের দোকানে বসে স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে আড্ডা দেন। ঘণ্টাখানেক পর তিনি বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন। তবে এর পর থেকে তাঁর সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। মধ্যরাতে স্থানীয় লোকজন জালালাবাদ কবরস্থানের পাশে তাঁর লাশ দেখতে পেয়ে পরিবারের সদস্যদের খবর দেন। পরে পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় জানানো হলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

লাশটি জালালাবাদ হাটপাড়া গ্রামের মৃত ইয়াছিন আলীর ছেলে ইসমাইল হোসেনের বলে তাঁর পরিবার নিশ্চিত করেছে। তিনি মাছের ব্যবসা করতেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাছিম আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ইসমাইল হোসেনের শরীরে তাঁরা কোনো আঘাতের চিহ্ন দেখতে পাননি। কীভাবে তাঁর মৃত্যু হয়েছে, তা তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়া গেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানানো যাবে। ওই ব্যক্তির সঙ্গে কারও বিরোধ আছে কি না, সেটা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন