করোনাভাইরাস সতর্কতায় মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় মধ্যপ্রাচ্য থেকে আসা পাঁচজনকে বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। তাঁরা দুবাই, কুয়েত এবং বাহরাইন থেকে এসেছেন। গতকাল রোববার ওই পাঁচজনকে কোয়ারেন্টিনে থাকার ব্যবস্থা করে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, গতকাল বিকেলে সাত প্রবাসীর খোঁজ পাওয়া যায়। তাঁদের মধ্যে ১৪ দিন আগে দেশে এসেছেন পাঁচজন। বাকি দুজনের মধ্যে একজন এক মাস ও অন্যজন ১৫ দিন আগে দেশে ফিরেছেন। তাঁদের মধ্যে দুবাই থেকে চারজন, কুয়েত থেকে দুজন এবং বাহরাইন থেকে একজন এসেছেন। ওই প্রবাসীদের বাড়ি গিয়ে প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরীক্ষায় দেহে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) কোনো লক্ষণ পায়নি উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

পরে ১৪ দিন আগে দেশে আসা পাঁচজনকে বাড়িতে কোয়েরেন্টিনে থাকতে বলা হয় এবং দুজনকে সতর্কভাবে চলাচলের পরামর্শ দেওয়া হয়।

কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এম মাহবুবুল আলম ভূঁইয়া প্রথম আলোকে বলেন, এ উপজেলায় পাঁচজনকে বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। প্রাথমিক পরীক্ষায় তাঁদের দেহে করোনাভাইরাসের লক্ষণ দেখা যায়নি। এরপরও সতর্কতা হিসেবে বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলা হয়েছে।

মাহবুবুল আলম ভূঁইয়া বলেন, এ সময়ের মধ্যে প্রবাসীদের মধ্যে কোনো লক্ষণ দেখা দিলে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ঢাকা থেকে বিশেষজ্ঞ দল এসে নমুনা নিয়ে যাবেন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার পূর্বপ্রস্তুতি হিসেবে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পুরোনো ভবনে পৃথক ওয়ার্ডে ২০টি শয্যা প্রস্তুত রাখা হয়েছে বলে তিনি জানান।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন