default-image

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের মাধবপুর বাজার থেকে শমশেরনগরের বড়চেগ গ্রামে মেয়ের বাড়িতে যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয়েছেন এক গৃহবধূ (৫৪)। তাঁর নাম সামসুন নাহার (৫৪)। তিনি মাধবপুর ইউনিয়নের বাজার এলাকার বাসিন্দা ইমানি মিয়ার (৬৪) স্ত্রী। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে তিনি বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন। সারা দিন তাঁর খোঁজ না পেয়ে আজ বুধবার সকালে কমলগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন নিখোঁজ গৃহবধূর স্বামী।

নিখোঁজ গৃহবধূর স্বামী ইমানি মিয়া আজ বেলা দেড়টার দিকে মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, গতকাল সকাল ৯টায় শমশেরনগর ইউনিয়নের বড়চেগ গ্রামে মেয়ে সেলিনা আক্তারের বাড়িতে যাচ্ছিলেন তাঁর স্ত্রী সামসুন নাহার। দুপুর পর্যন্ত তিনি মেয়ের বাড়িতে পৌঁছাননি খবর পেয়ে বিভিন্ন স্থানে আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে খোঁজ নিতে শুরু করেন তাঁরা। কোথাও তাঁর কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।

সন্ধ্যা ৭টার দিকে গৃহবধূর ব্যবহৃত মুঠোফোন নম্বর থেকে অপরিচিত এক নারী ফোন করে জানান, ফোনের মালিক নারী ঢাকার ফার্মগেট এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে পড়ে আছেন। তাঁকে হাসপাতালে নিতে ৪০-৫০ হাজার টাকা লাগবে।

তবে সন্ধ্যা ৭টার দিকে তাঁর স্ত্রীর ব্যবহৃত মুঠোফোন নম্বর থেকে অপরিচিত এক নারী ফোন করে জানান, ফোনের মালিক নারী ঢাকার ফার্মগেট এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে পড়ে আছেন। তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দিতে ৪০-৫০ হাজার টাকা লাগবে। টাকা নিয়ে ঢাকায় যেতে হবে। এরপর ফোনটি বন্ধ করে দেন ওই অপরিচিত নারী। এই তথ্য থানার পুলিশ কর্মকর্তাকে অবহিত করেছেন বলে ইমানি মিয়া জানান।

কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আরিফুর রহমান এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে নিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করছে। প্রাথমিকভাবে মুঠোফোন নম্বর ট্র্যাক করে জানা যায়, গাজীপুরের জয়দেবপুর এলাকা থেকে কলটি আসে। তিনি ধারণা করছেন, গৃহবধূ কোনো না কোনোভাবে প্রতারক চক্রের হাতে আছেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন