default-image

রাজশাহী টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারের (টিটিসি) কম্পিউটার ল্যাবের ২৯টি কম্পিউটারের যন্ত্রাংশ চুরি হয়ে গেছে। শুধু কম্পিউটারগুলোর মনিটর আছে। সিপিইউর সব যন্ত্রাংশ খুলে নিয়ে গেছে চোরের দল। ঘটনার এক দিন পর কর্তৃপক্ষ রাজশাহী নগরের শাহ মখদুম থানায় মামলা করেছে। এ ব্যাপারে আজ সোমবার থেকে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটিও কাজ শুরু করেছে।

কম্পিউটার ল্যাবটি টিটিসির ভেতর আইটি ভবনের তৃতীয় তলায় অবস্থিত। গতকাল রোববার বিকেলে কর্তৃপক্ষ চুরির বিষয়টি জানতে পারে। আইটি ভবনে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা থাকলেও ফুটেজ ‘স্টোর’ হয় না। ফলে কর্তৃপক্ষের কাছে কোনো ফুটেজ নেই।

অধ্যক্ষ এস এম এমদাদুল হক দাবি করেন, সিসি ক্যামেরার ফুটেজ হার্ডডিস্কে স্টোর না হওয়ার বিষয়টি তিনি আগে জানতেন না। গতকাল বিকেলে ল্যাবে প্রশিক্ষণার্থীদের কম্পিউটার ক্লাস ছিল। তখনই চুরির বিষয়টি তিনি জানতে পারেন।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, গত শনিবার সন্ধ্যা ছয়টা থেকে গতকাল রোববার সকাল ছয়টার মধ্যে চুরির ঘটনা ঘটেছে।

বিজ্ঞাপন

চুরির ঘটনায় গতকাল দিবাগত রাত একটার দিকে রাজশাহী মহানগরের শাহ মখদুম থানায় অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিকে আসামি করে মামলা করেন অধ্যক্ষ। ঘটনা তদন্তে উপাধ্যক্ষ আক্তারা শাহীনকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আজ সকালে তদন্ত কমিটির সদস্যরা ল্যাবটি পরিদর্শন করেছেন। এ ছাড়া রাতেই পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

তদন্ত কমিটির প্রধান উপাধ্যক্ষ আক্তারা শাহীন আজ দুপুরে প্রথম আলোকে বলেন, আগামীকাল মঙ্গলবারের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। আজ সকাল থেকে তাঁরা কাজ শুরু করেছেন। এখন পর্যন্ত তাঁরা কিছু বুঝে উঠতে পারেননি।

টিটিসির একটি সূত্র বলছে, চারতলা ভবনটির নিচতলার প্রধান ফটকের তালা স্বাভাবিক ছিল। তবে তৃতীয় তলার ল্যাবের তালা ভাঙা পাওয়া গেছে। এই ভবনের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ না থাকার কারণে চোর শনাক্ত করা যাচ্ছে না। সিসি ক্যামেরার বিষয়টি আগেই অধ্যক্ষকে অবহিত করা হয়েছিল। তবে এ ব্যাপারে তিনি কোনো পদক্ষেপ নেননি। টিটিসির ভেতরেরই কেউ এই চুরির সঙ্গে জড়িত বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শাহ মখদুম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম সরকার প্রথম আলোকে বলেন, বাইরের তালার চাবি কয়েকজনের কাছে থাকে। তাঁরা তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন। কিন্তু প্রাথমিকভাবে কিছু জানা যায়নি। কম্পিউটার সম্পর্কে ভালো জানেন, এমন লোকজনই এই চুরির সঙ্গে জড়িত বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন