default-image

চট্টগ্রাম সর্বোচ্চ করোনা ঝুঁকিতে রয়েছে উল্লেখ করেছেন সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বী। তিনি সরকারের পাশাপাশি নিজেদেরও সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। এ ছাড়া সিটি করপোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে সভা–সমাবেশ কিংবা গণজমায়েত না করার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

আজ সোমবার বিকেলে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে হাম, রুবেলা–সংক্রান্ত এক সংবাদ সম্মেলনে সিভিল সার্জন এই সাবধানতার কথা বলেন। সিভিল সার্জন বলেন, চট্টগ্রামে বর্তমানে ২৯ জন হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। বিদেশফেরতদের এটা মানতে হবে। এ জন্য প্রশাসন প্রস্তুতি নিচ্ছে। পাশাপাশি সবাইকে সচেতন হতে হবে।

সেখ ফজলে রাব্বী বলেন, চট্টগ্রাম নানা কারণে করোনার উচ্চ ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। চট্টগ্রামে বিমানবন্দরের পাশাপাশি সমুদ্রবন্দর রয়েছে। এ ছাড়া প্রায় প্রতিটি উপজেলায় প্রবাসী লোকজন রয়েছে। পাশাপাশি চট্টগ্রামে মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপ প্রবাসী নাগরিকের সংখ্যাও দেশের অন্যান্য জেলার চেয়ে বেশি। এসব কারণে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রার্থীদের সব রকম সভা-সমাবেশ, মিছিল ও গণজমায়েত না করার আহ্বান জানিয়েছেন চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন।
আজ বিকেলে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ আহ্বান জানান।

পাশাপাশি সিটি ভোটের প্রার্থীদের প্রচারণার জন্য ডিজিটাল মাধ্যম, টিভি রেডিও অথবা মোবাইল ফোনের সহায়তা নিতে আহ্বান জানিয়েছেন সিভিল সার্জন।

এক প্রশ্নের জবাবে সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, যেখানেই সভা, মিছিল, সমাবেশ বা গণজমায়েত, সেখানেই সংক্রমের আশঙ্কা সর্বোচ্চ। এগুলো বাদ দিয়ে ডিজিটাল প্রচারণা, এসএমএম, ফোন কল, রেডিও টিভির মাধ্যমে প্রয়োজনে স্ক্রল দিয়ে এবং নির্বাচন কমিশনও অনুষ্ঠান আয়োজন করতে পারে। সেখানে সব প্রার্থী গিয়ে তাঁদের কথা বলবেন। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমেও এমন আয়োজন করা যেতে পারে।

কোয়ারেন্টিনের জন্য রেলওয়ে হাসপাতাল প্রস্তুত রাখা হয়েছে বলে তিনি জানান। এ ছাড়া রোগের লক্ষণ দেখা দিলে ফৌজদারহাট বিআইটিআইডিতে পাঠিয়ে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন