বিজ্ঞাপন

শুক্রবার সকালে বাসদ বরিশাল নগরের ফকিরবাড়ি রোডের কার্যালয়ে ফিরনি এবং দুপুরে বিরিয়ানি দিয়ে শ্রমজীবী ও নিম্ন আয়ের মানুষকে আপ্যায়ন করে। এরপর বেলা ৩টায় তারা নগরের কেডিসি বস্তি, পলাশপুর ও রসুলপুর বস্তি এলাকার ৪০০ পরিবারের সদস্যদের মধ্যে রান্না করা খাবার বিতরণ করে।

বাসদের জেলা আহ্বায়ক ইমরান হাবিব বলেন, ‘ঈদের খুশি সবার মধ্যে ছড়িয়ে দিতেই গত বছরের মতো এবারও আমরা ঈদের দিনে ৭০০ পরিবারের জন্য উন্নতমানের খাবার বিতরণ করেছি।’

হোপ বরগুনার সদস্যরা শুক্রবার দুপুর ১২টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বরগুনা শহরের উপকণ্ঠে মনসাতলী এলাকায় ৭০টি বেদে পরিবারের শিশু ও বৃদ্ধ, শহরের হাসপাতাল সড়কের পেছনের বস্তি, গগন স্কুল এলাকা, গোলবুনিয়াসহ বিভিন্ন এলাকার ৩৫০ জনের হাতে বিরিয়ানির প্যাকেট তুলে দেন। এ ছাড়া তাঁরা নিম্নবিত্ত ৬২৫টি পরিবারকে ঈদ উপলক্ষে খাদ্যপণ্য ও ৫০ শিশুকে রঙিন পোশাক দেয়।

হোপ বরগুনা গত বছর করোনাকালে লকডাউন শুরু হলে এ কার্যক্রম শুরু করে। কার্যক্রমের আওতায় খাদ্যপণ্য সহায়তা, বৃদ্ধদের চিকিৎসা সহায়তা, শিশুদের জন্য দুধ, ডিম ও পুষ্টিকর রান্না করা খাবার, কিশোরীদের স্যানিটারি ন্যাপকিন, গর্ভবতী নারীদের জন্য পুষ্টিকর খাবার, বিধবা নারীদের এক মাসের খাদ্যপণ্য, ঘর তোলার সহায়তা, রমজানে ইফতারি বিতরণসহ নানা কার্যক্রম চালাচ্ছে।

সংগঠনটির সহপ্রতিষ্ঠাতা তরুণ উদ্যোক্তা রাকিবুল ইসলাম বলেন, ‘করোনার সময় মানুষের আয়রোজগার কমে গেছে। এ কারণে গত বছরের ২৫ মার্চ থেকে আমরা কয়েকজন তরুণ মিলে হোপ বরগুনার কার্যক্রম শুরু করি। মাঠে কাজ করতে গিয়ে আমরা লক্ষ করেছি যে মানুষের শুধু খাদ্যপণ্য নয়, করোনাকালে পরিবারের প্রত্যেক সদস্যের আলাদা আলাদা চাহিদার রয়েছে। এরপর আমরা সে অনুযায়ী সহায়তা দেওয়া শুরু করি।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন