বিজ্ঞাপন

গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে করোনায় আক্রান্ত ১২২ জন সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ২৯ হাজার ৯৯৮ জন। সুস্থতার হার প্রায় ৯৩ শতাংশ। এখনো বাসায় ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ১ হাজার ৭২৭ জন। এর মধ্যে খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে বর্তমানে ৪৭ জন করোনা রোগী চিকিৎসাধীন, যার মধ্যে ৮ জন আছেন আইসিইউতে। খুলনা জেলায় ভারতফেরত ৩৭৫ জন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন।

২৪ ঘণ্টায় খুলনায় ৩৩ জন (খুলনা নগরে ৩০ জন), বাগেরহাট, ঝিনাইদহ এবং মেহেরপুরে ৪ জন করে, যশোরে ১৭, কুষ্টিয়ায় ৫ এবং চুয়াডাঙ্গায় ২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ সময় নড়াইল, সাতক্ষীরা এবং মাগুরায় কেউ শনাক্ত হয়নি।

এই ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের খুলনায় ও যশোরে একজন করে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৫৯৭ জন। এর মধ্যে খুলনা জেলায় রয়েছেন ১৬০ জন, কুষ্টিয়ায় ১০৮, যশোরে ৭৬, ঝিনাইদহে ৫৪, চুয়াডাঙ্গায় ৫৩, সাতক্ষীরায় ৪৪, বাগেরহাটে ৩৫, নড়াইলে ২৫, মাগুরায় ২৩ ও মেহেরপুরে ১৯ জন রয়েছেন। বিভাগে করোনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৮৫ শতাংশ।

খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় চুয়াডাঙ্গায় গত বছরের ১৯ মার্চ। গত বছরের ২৩ জুলাই এ সংখ্যা ১০ হাজার এবং ১২ আগস্ট ১৫ হাজার ছাড়ায়। চলতি বছর ১ জানুয়ারি ২৫ হাজার এবং গত ১১ মে শনাক্তের সংখ্যা ৩২ হাজার ছাড়ায়।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, খুলনা বিভাগের জেলাভিত্তিক হিসাবে এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ ৯ হাজার ৫৬৯ রোগী শনাক্ত হয়েছে খুলনা জেলায়। এর মধ্যে খুলনা শহরে শনাক্ত হয়েছে ৭ হাজার ৭৬৪ জন। বিভাগের মধ্যে প্রায় ৩০ শতাংশ রোগীই খুলনা জেলার। এ ছাড়া বাগেরহাটে শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৪৪৪ জন, চুয়াডাঙ্গায় ১ হাজার ৮৯৭, যশোরে ৬ হাজার ৫৬০, ঝিনাইদহে ২ হাজার ৮১৮, কুষ্টিয়ায় ৪ হাজার ৭০৬, মাগুরায় ১ হাজার ২৪৩, মেহেরপুরে ৯২৮, নড়াইলে ১ হাজার ৮৪২ ও সাতক্ষীরায় ১ হাজার ৩১৫ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন