default-image

করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) সংক্রমিত হয়ে রাজশাহীর পবা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুনসুর রহমান মারা গেছেন। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ রোববার বিকেল পৌনে পাঁচটার দিকে তিনি মারা যান।

পবা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শিমুল আকতার জানান, উপজেলা চেয়ারম্যান মুনসুর রহমানের ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপ ছিল। কয়েক দিন আগে মাথাব্যথা নিয়ে তিনি রাজশাহী নগরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন। এরপর গত বৃহস্পতিবার নমুনা পরীক্ষায় তাঁর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। সেদিনই তাঁকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এরপর তিনি একটি কেবিনে ছিলেন। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে পরদিন শুক্রবার তাঁকে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) স্থানান্তর করা হয়। এর পরের দিনই তিনি মারা যান।

বিজ্ঞাপন

আইসিইউ ইনচার্জ আবুল হেনা মোস্তফা কামাল বিকেল পাঁচটার দিকে প্রথম আলোকে বলেন, এক ঘণ্টা আগেই তিনি ‘ক্লিনিক্যালি’ মারা যান। পৌনে পাঁচটায় আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁকে মৃত ঘোষণা করা হয়। দুই ঘণ্টা পর কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন লাশ দাফনের ব্যবস্থা করবে।

মুনসুর রহমান রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক শিল্পবিষয়ক সম্পাদক। পবা উপজেলার নওহাটা পৌরসভার শ্রীপুর মহল্লার বাসিন্দা ছিলেন তিনি। তাঁর বাবার নাম হামিদ সরকার। করোনায় সংক্রমিত হয়ে মুনসুর রহমানের ছোট ভাই আনিসুর রহমানও দুই মাস আগে মারা যান।

মুনসুর রহমানের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম। তিনি শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

মন্তব্য পড়ুন 0