বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পরিবার ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা যায়, ১৯৪৫ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি আফজল খান কুমিল্লা নগরের ঠাকুরপাড়া এলাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবার নাম মো. ছাদেক আলী খান ও মায়ের নাম সাজেদা খানম। ১৯৬৫ সালে তিনি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ছাত্রসংসদ থেকে ছাত্রলীগের প্যানেল থেকে ভিপি (সহসভাপতি) নির্বাচিত হন। ’৬৬–এর ছয় দফা, ’৬৯–এর গণ-অভ্যুত্থান, ১৯৭০ সালের নির্বাচন ও একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন ও সংগঠকের ভূমিকা পালন করেন তিনি। ১৯৭৩ সালে আফজল খান কুমিল্লা পৌরসভার ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তিনি কুমিল্লা শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

১৯৭৮ ও ১৯৮৪ সালে কুমিল্লা পৌরসভা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়ে পরাজিত হন। ১৯৮৬ সালে কুমিল্লা-৬ (আদর্শ সদর) আসন থেকে আওয়ামী লীগের হয়ে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে পরাজিত হন। এরপর তিনি ১৯৯০ সালে কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে জয়ী হন। ১৯৯৫ সালে তিনি কাউন্সিলরদের ভোটে কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হন। ২০০৬ সালে তিনি ১৪ দলের কুমিল্লা জেলা শাখার সমন্বয়ক হন। ২০০৮ সালে তিনি কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়কের দায়িত্ব পান। ২০১২ সালের ৫ জানুয়ারি কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে তিনি মেয়র পদে নির্বাচন করে পরাজিত হন।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা জানিয়েছেন, আফজল খান অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন। তিনি বাংলাদেশ সমবায় ব্যাংকের চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি কুমিল্লা শিল্প ও বণিক সমিতির একাধিকবার সভাপতি নির্বাচিত হন। এ ছাড়াও তিনি বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সহসভাপতি ছিলেন। সমবায় আন্দোলনে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ শ্রেষ্ঠ সমবায় পুরস্কার হিসেবে স্বর্ণপদক ও বৃক্ষরোপণে অবদান রাখায় স্বর্ণপদক পেয়েছেন তিনি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন