default-image

করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) সংক্রমিত ব্যক্তিদের সার্বিক সহযোগিতায় স্বেচ্ছাসেবক দল গঠনের উদ্যোগ নিয়েছে রাজশাহী সিটি করপোরেশন। নগরের ৩০টি ওয়ার্ডে ৩০টি দল এই রোগীদের সেবায় পাশে থাকবে। শিগগিরই এসব দল গঠন করা হবে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নগর ভবনের সিটি হলরুমে এক সভায় এ ঘোষণা দেন মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান।

সভায় মেয়র বলেন, মহানগরের করোনায় আক্রান্তদের সহযোগিতায় ৩০টি ওয়ার্ডে স্বেচ্ছাসেবী দল গঠন করা হচ্ছে। দলগুলো সব সময় সক্রিয় থাকবে। খবর পেলেই আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়িতে চলে যাবে। বাড়ি বাড়ি জরুরি ওষুধ ও খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়াসহ অন্যান্য সহযোগিতা দেবে।

রাজশাহী নগরে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাচ্ছে জানিয়ে মেয়র বলেন, করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় পুরো মহানগর নিয়ে নতুন করে ভাবতে হচ্ছে। নগরে জীবাণুনাশক স্প্রে ও পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম আরও জোরদার করা হবে। করোনার সংক্রমণ ঠেকানোর লক্ষ্যে নগর ভবনে ইতিমধ্যে একটি স্বয়ংক্রিয় জীবাণুনাশক টানেল বসানো হয়েছে। আরও ৩-৪টি স্থাপন করা হবে। সিটি করপোরেশনে আগত সবাইকে এই টানেলে মধ্য দিয়ে প্রবেশ করতে হবে। জরুরি সেবা প্রদান কার্যক্রম সহজ করতে নগর ভবনের সম্মুখ চত্বরে ওয়ান–স্টপ সার্ভিস বুথ স্থাপন করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

মেয়র খায়রুজ্জামান বলেন, এ করোনা পরিস্থিতির মধ্যে সিটি করপোরেশনের কার্যক্রম থেমে নেই। করোনাযোদ্ধাদের মতোই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নগরবাসীকে সেবা প্রদান করে যাচ্ছেন। এটি করতে গিয়ে এরই মধ্যে কয়েকজন আক্রান্ত হয়েছেন। সিটি করপোরেশনের আক্রান্তদের সহযোগিতা প্রদান করা হবে।

সভায় উপস্থিত ছিলেন সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম শরীফ উদ্দিন, সচিব আবু হায়াত মো. রহমতুল্লাহ, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা শাহানা আখতার জাহান, বাজেট কাম হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম খান, ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী খন্দকার খায়রুল বাশার, প্রধান পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তা শেখ মো. মামুন ডলার, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমর কুমার পাল প্রমুখ।

রাজশাহী নগর স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহী নগরে গত ১৫ মে প্রথম কোভিড–১৯ আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়। শুরুতে আক্রান্তদের সংখ্যা ধীরে ধীরে বাড়লেও কয়েক দিন ধরে গড়ে প্রতিদিন ৩০ জন করে শনাক্ত হচ্ছে। গত বুধবার পর্যন্ত নগরে করোনা আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৩০ জন। শুধু নগরেই মারা গেছেন ৩ জন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0