বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এলাকার কিছু বাসিন্দা ও থানা-পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচনী প্রচারণাকে কেন্দ্র করে শনিবার রাত আটটার দিকে বেতগড়া এলাকায় দুই প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় বিদ্রোহী প্রার্থী হাসান ও তাঁর সমর্থক মাসুদ রানা, দেলোয়ার হোসেন, মুজিবর রহমান, তোতা মিয়া এবং আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সমর্থক আশ্রাফুল ইসলাম জনিসহ অন্তত ১০ জন আহত হন। আহত ব্যক্তিদের মধ্যে পাঁচজন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

তাহেরা খাতুন বলেন, শনিবার রাতে তাঁর লোকজন প্রচারে বের হলে স্বতন্ত্র প্রার্থী হাসান আল মামুনের নেতৃত্বে তাঁদের ওপর হামলা চালানো হয়।

তবে হাসান আল মামুন বলেন, এলাকায় তাঁর জনপ্রিয়তা দেখে নৌকা প্রতীকের লোকজন তাঁকে প্রায়ই হুমকি-ধমকি দেন। প্রতীক বরাদ্দ হওয়ার পর থেকেই তাঁর পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হচ্ছে। শনিবার রাতে তাঁকে ও তাঁর কর্মী-সমর্থদের মারধর করা হয়েছে।

কলমাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল আহাদ খান বলেন, বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। কাউকে হয়রানি করা হচ্ছে না। নির্বাচনী এলাকায় পুলিশ টহল জোরদার করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন