default-image

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় তরুণীর (২০) গোসল করার ভিডিও গোপনে মুঠোফোনে ধারণ করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই পরিবারের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ওই তরুণীর মা (৫২) মারা গেছেন। আজ সোমবার দুপুরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। গতকাল রোববার রাতে প্রতিপক্ষের হামলায় তিনি আহত হন।

ওই তরুণীর পরিবার কলমাকান্দার একটি গ্রামের বাসিন্দা। হামলার ঘটনায় আহত ওই তরুণী, তাঁর বাবা, ভাই ও বোন কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

রোববার দুপুরে গোসলখানার টিনের ছিদ্র দিয়ে রুবেল মিয়া (২৪) তাঁর আত্মীয় ওই তরুণীর গোসলের ভিডিও মুঠোফোনে গোপনে ধারণ করেন। এ সময় মেয়েটি তা দেখে রুবেলকে ভিডিওটি ডিলিট করার অনুরোধ জানান। কিন্তু রুবেল তা মানেননি।

এলাকার বাসিন্দা, নিহতের পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রোববার দুপুরে ওই তরুণী বাড়ির গোসলখানায় গোসল করতে যান। এ সময় গোসলখানার টিনের ছিদ্র দিয়ে তাঁর আত্মীয় রুবেল মিয়া (২৪) তা মুঠোফোনে ভিডিও ধারণ করেন। এ সময় মেয়েটি তা দেখে রুবেলকে ভিডিওটি ডিলিট করার অনুরোধ জানান। কিন্তু রুবেল তা মানেননি। পরে মেয়েটি তাঁর পরিবারকে ঘটনাটি জানান।

বিজ্ঞাপন

সন্ধ্যা সাতটার দিকে তরুণীর বড় ভাই (২৫) রুবেলকে ভিডিও ধারণের বিষয়টি জিজ্ঞেস করেন। একপর্যায়ে উভয়ের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। এ সময় রুবেলের মা শাহারা খাতুন এবং তিন ভাই বাবুল মিয়া, রুবেল মিয়া ও সোহেল মিয়া লাঠিসোঁটা নিয়ে তরুণীর পরিবারের ওপর হামলা চালান। এতে ওই তরুণী, তাঁর মা, বাবা, বড় ভাই ও বোন আহত হন। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন। এ সময় তরুণীর মায়ের অবস্থা অবনতি হলে চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ দুপুরে তিনি মারা যান।

নিহত ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের মর্গে রাখা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের আটক করতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।
এ টি এম মাহমুদুল হক, কলমাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)

এদিকে এই মৃত্যুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে রুবেল মিয়াসহ তাঁর পরিবারের সদস্যরা বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যান। তাঁদের মুঠোফোন বন্ধ থাকায় এ বিষয়ে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কলমাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ টি এম মাহমুদুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহত ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের মর্গে রাখা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের আটক করতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন