default-image

ব্রা‏হ্মণবাড়িয়ার কসবায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক ছাত্রীর বিয়ে বন্ধ হয়েছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হাছিবা খান রোববার বিকেলে ওই ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে এ বিয়ে বন্ধ করেন। ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিয়ে না দিতে মুচলেকা দিয়েছেন অভিভাবকেরা।

উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কসবা উপজেলার বাদৈর ইউনিয়নের স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রীর রোববার রাতে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। মেয়ের পরিবার সব আয়োজনও শেষ করেছিলেন। কুমিল্লা জেলা সদরে এক প্রবাসীর ছেলের সঙ্গে এই বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। ছাত্রীর বাবা সৌদি আরবে থাকেন। বাল্যবিবাহের খবর পেয়ে রোববার বিকেলে সহকারী কমিশনার (ভূমি) হাছিবা খান ওই ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে এর সত্যতা পান। পরে তিনি বিয়ে বন্ধের নির্দেশ দেন।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) হাছিবা খান প্রথম আলোকে বলেন, বাল্যবিবাহ দেওয়া অপরাধ। নবম শ্রেণির ছাত্রীর বিয়ের খবর পেয়ে বাড়িতে গিয়ে এর সত্যতা পাওয়া যায়। মেয়েকে ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেবেন না মর্মে ছাত্রীর মা ও চাচি মুচলেকা দিলে বিয়েটি বন্ধ হয়ে যায়। প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার আগে বিয়ের ব্যবস্থা করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0