কসবায় ২৪ ঘণ্টায় দুটি বাল্যবিবাহ বন্ধ

বিজ্ঞাপন
default-image

ব্রা‏হ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলায় আজ সোমবার দুপুরে উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে একটি বাল্যবিবাহ বন্ধ হয়েছে। এর আগে গতকাল রোববার দুপুরেও একটি বাল্যবিবাহ বন্ধ করেছে প্রশাসন। দুটি পরিবারের লোকজন তাঁদের মেয়েকে ১৮ বছর বয়সের আগে বিয়ে দেবেন না মর্মে মুচলেকা দিয়েছেন।

বিয়ে দুটি বন্ধ করেছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও কসবা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হাছিবা খান।

ভ্রাম্যমাণ আদালত ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আজ সোমবার কসবা উপজেলার বায়েক ইউনিয়নের একটি গ্রামের নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে কসবা পৌর এলাকার একটি গ্রামের প্রবাসী এক যুবকের বিয়ের আয়োজন করা হয়। খবর পেয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও কসবা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হাছিবা খান কনের বাড়িতে হাজির হন। কনের বাবা মেয়েকে ১৮ বছর বয়সের আগে বিয়ে দেবেন না মর্মে মুচলেকা দিলে বিয়ে বন্ধ হয়ে যায়।

অপর দিকে গতকাল রোববার বিকেলে কসবার মেহারী ইউনিয়নের একটি গ্রামের দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর বিয়ে ঠিক হয় উপজেলার কাইমপুর ইউনিয়নের প্রবাসী এক যুবকের সঙ্গে। হাছিবা খান সেখানে গিয়েও বিয়ে বন্ধ করেন।

হাছিবা খান প্রথম আলোকে বলেন, বাল্যবিবাহ আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিয়ে দেওয়া যাবে না। দুটি পরিবারের লোকজন মুচলেকা দিলে বিয়ে বন্ধ হয়ে যায়। মেয়ে দুটির অভিভাবকদের বলা হয়েছে, ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিলে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে জেল-জরিমানা করা হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন