default-image

মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি ও মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া নৌপথের কাঁঠালবাড়ি ঘাটটি আর থাকছে না। নাব্যতা সংকট ও পদ্মা সেতুর কাজের জন্য কাঁঠালবাড়ি ঘাটটি সরিয়ে আনা হচ্ছে বাংলাবাজার নামে স্থানে। সোমবার সকালে নতুন ঘাট দিয়ে ফেরি চলাচল শুরু করেছে। কাঁঠালবাড়ি থেকে বাংলাবাজার ঘাটটি প্রায় ৫০০ মিটার উজানে। এখন থেকে বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নামে পরিচিত হবে এই নৌপথটি।

ঘাট কর্তৃপক্ষ বলছে, বাংলাবাজার হয়ে শিমুলিয়া নৌপথের জন্য নতুন নৌ-চ্যানেল তৈরি করা হয়েছে। এই চ্যানেলে নাব্যতা সংকট থাকছে না। নতুন নৌপথ দিয়ে রো রো, ডাম্বসহ সব ফেরি চলাচল করতে পারবে। তবে নতুন এই নৌপথে এখনো লঞ্চ চলাচল শুরু হয়নি। লঞ্চ ও স্পিডবোটগুলো কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া হয়েই চলাচল করছে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) কাঁঠালবাড়ি ঘাট সূত্র জানায়, নাব্যতা সংকট ও পদ্মা সেতুর নদী শাসনের জন্য কাঁঠালবাড়ি ঘাটটি সরিয়ে বাংলাবাজার এলাকায় স্থানান্তর করা হচ্ছে। প্রায় চার-পাঁচ মাস ধরেই নতুন ঘাট তৈরির কাজ চলছিল। সোমবার সকালে কাঁঠালবাড়ি থেকে দুটি ফেরিঘাট সরিয়ে বাংলাবাজার নতুন ঘাটে নেওয়া হয় এবং সকাল থেকে দুটি ঘাট দিয়ে ফেরি চলাচল শুরু করে। অন্য ঘাটও সরিয়ে নেওয়ার কাজ চলমান আছে।

বিজ্ঞাপন

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাটের মেরিন কর্মকর্তা আহমদ আলী বলেন, কাঁঠালবাড়ি ঘাটের পেছনে ৫০০ মিটার উজানে নতুন ঘাটটি তৈরি করা হয়েছে। সকাল থেকে দুটি ফেরি চালু হয়েছে নতুন ঘাটে। নতুন ঘাটের কারণে দূরত্ব বাড়ল আধা কিলোমিটার। বর্তমানে বিকল্প চ্যানেলে ফেরি চলাচলে দূরত্ব ছিল সাড়ে ১২ কিলোমিটার। আর বাংলাবাজার-শিমুলিয়া ঘাটের দূরত্ব হচ্ছে ১৩ কিলোমিটার। তিনি আরও বলেন, লঞ্চ, স্পিডবোটসহ অন্য দুটি ফেরিঘাটও স্থানান্তরের কাজ চলছে। দু-এক দিনের মধ্যেই নতুন ঘাটটির পুরোপুরি ব্যবহার শুরু হবে।

২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে কাওড়াকান্দি ঘাট সরিয়ে কাঁঠালবাড়িতে আনা হয়। তিন বছর পর আবারও ঘাট স্থানান্তর করা হলো।

মন্তব্য পড়ুন 0