default-image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কাজি পরিচয় দেওয়া মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন (৬১) নামের একজন ব্যক্তিকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে জেলা শহরের কাউতলীর একটি খাবার হোটেল থেকে কাজি সমিতির নেতারা তাঁকে আটক করে পুলিশে দেন।

আটক মোসাদ্দেক হোসেন জেলার নবীনগর উপজেলার শ্যামগ্রাম ইউনিয়নের বানিয়াচং গ্রামের বাসিন্দা। তাঁর কাছ থেকে একটি বিয়ে নিবন্ধন বই, দুটি তালাক নিবন্ধন বই ও সিলমোহর উদ্ধার করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা কাজি সমিতির সভাপতি ইয়াহিয়া মাসুদ অভিযোগ করেন, মোসাদ্দেক হোসেন সরকার নিবন্ধিত কোনো কাজি নন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে কাজি পরিচয়ে বিয়ে পড়িয়ে আসছিলেন। বিয়ে নিবন্ধন করার জন্য সোমবার সকালে মোসাদ্দেক কিশোরী এক মেয়ের ভুয়া হলফনামা করতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আদালতে আসেন। পরে তাঁকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে মোসাদ্দেক হোসেন বলেন, তিনি ১৯৭১ সাল থেকে কাজির দায়িত্ব পালন করছেন। তাঁর কাগজপত্রের বৈধতা নিয়ে আদালতে মামলা আছে।

জেলা রেজিস্ট্রার সরকার লুৎফুল কবির বলেন, মোসাদ্দেক হোসেন নিবন্ধিত কাজি নন। তাঁর বৈধতার পক্ষে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে পারেননি তিনি। তাঁর কাছে পাওয়া নিবন্ধন বইগুলোও নকল বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। পরে তাঁকে পুলিশের কাছে তুলে দেওয়া হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মুহাম্মদ শাহজাহান বলেন, কাজি সমিতির সভাপতি থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন। আটক ওই ভুয়া কাজির বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন