default-image

মাদারীপুরের কালকিনি পৌরসভা নির্বাচনের নতুন তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। ৩১ মার্চ এই নির্বাচন হবে। গতকাল মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে জেলা নির্বাচন ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত মাসের ১৪ ফেব্রুয়ারি এই পৌরসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণের কথা ছিল। নির্বাচনে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় ও নির্বাচনী পরিবেশ অনুকূলে না থাকায় ভোট গ্রহণের তিন দিন আগে নির্বাচন স্থগিত করেছিল নির্বাচন কমিশন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গত ৬ ফেব্রুয়ারি দুপুরে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছিলেন স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মসিউর রহমান। বিকেল চারটার দিকে মসিউরের ব্যবহৃত মুঠোফোনে কল করেন মাদারীপুরের পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ মাহবুব হাসান। তাৎক্ষণিক সেখানে কালকিনি থানার ওসি নাছিরউদ্দিন গাড়ি নিয়ে হাজির হন। পরে সেখান থেকে তাঁকে পুলিশের গাড়িতে করে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপরই নিখোঁজ হন মসিউর। নিখোঁজের ১১ ঘণ্টা পর কালকিনি পৌরসভার দক্ষিণ কৃষ্ণনগরের নিজ বাড়িতে ফিরে আসেন মসিউর রহমান। এর পরপরই আলোচনায় উঠে আসে কালকিনি পৌরসভা নির্বাচনের বিষয়টি। ১৮ ফেব্রুয়ারি কমিশনের জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক হুমায়ুন কবিরকে প্রধান করে গঠন করা হয় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি।

বিজ্ঞাপন

স্বতন্ত্র প্রার্থী নিখোঁজের ঘটনায় সংশ্লিষ্ট পুলিশের ভূমিকা, দোষী ব্যক্তিকে চিহ্নিত করা, প্রকৃত ঘটনা উদ্‌ঘাটন, ভবিষ্যতে এ ঘটনার পুনরাবৃত্তি যেন না ঘটে, এ ব্যাপারে সুপারিশের বিষয়ে তদন্তে প্রাধান্য দিতে বলা হয়। পরে জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান ও কালকিনি থানার ওসি নাসির উদ্দিন মৃধাকে অন্যত্র বদলি করা হয়।

জেলা নির্বাচন ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, ‘কমিশন থেকে করা তদন্ত কমিটি পুলিশ সুপার বা ওসির ভুলত্রুটি পায়নি। তবে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ তাদের অন্যত্র বদলি করেছে। বর্তমানে নির্বাচনী এলাকার পরিবেশ স্বাভাবিক ও অনুকূলে থাকায় ৩১ মার্চ নতুন তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। আশা করছি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ একটি নির্বাচন আমরা কালকিনিবাসীকে উপহার দিতে পারব।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন