default-image

নড়াইলের কালিয়া উপজেলায় নবম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে পৌর এলাকার উথালী গ্রামের বিলে এ ঘটনা ঘটে। ওই ছাত্রীকে রাতেই নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার পরিবার দরিদ্র। বাবা ভাঙারির দোকানি করেন।

এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে তিনজনের নাম উল্লেখ করে রাতেই মামলা করেছেন। এ ছাড়া মামলায় তিনজন অজ্ঞাতপরিচয় আসামি রয়েছেন। পুলিশ রাতেই নিশান (১৭) নামের এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে। তার বাড়ি পৌর এলাকার উথালী গ্রামে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ তিনজনকে আটক করেছে।

পুলিশ ও ওই ছাত্রীর পরিবারের সদস্য সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার আগমুহূর্তে ওই ছাত্রী ছাগল আনার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়। পথে ফাঁকা জায়গায় গেলে ছয়জন তাঁকে ধরে ঘটনাস্থলে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ঘটনার শিকার ছাত্রী পুলিশকে জানিয়েছে, তিনজন ধর্ষণ করার পর সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে জ্ঞান ফিরে পেলে বাড়িতে আসে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কালিয়া থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মো. আমানউল্লাহ আল বারী জানান, এজাহারভুক্ত আসামি নিশানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য প্রচেষ্টা চলছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন